মাধবপুর সীমান্ত থেকে দুই বাংলাদেশীকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ

হবিগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
হবিগঞ্জের উপজেলা মাধবপুরের সীমান্বর্তী এলাকা রাজনগর থেকে দুই বাংলাদেশীকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ। মঙ্গলবার ভোর রাতের দিকে এই ঘটনা ঘটে বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত করেছে বিজিবি।
এদিকে পরদিন মঙ্গলবার দুপুরের পর এ নিয়ে বিজিবি-বিএসএফ এর মাঝে পতাকা বৈঠক হলেও এখন পর্যন্ত ওই দুই জনকে ফেরতের ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারেনি কোন পক্ষ। এ বৈঠকের বিজিবি পক্ষে নের্তৃত্ব দেন ৫৫ ব্যাটালিয়ানের বড়জ্বালা সীমান্ত ফাঁড়ির নায়েক সুবেদার লোকমান হোসেন এবং বিএসএফ এর পক্ষে ছিলেন ৪৮ ব্যাটালিয়ানের তারাপুর ক্যাম্পের কমান্ডার সুরুজ বাইন।
বিজিবি সূত্র জানায়, ওই উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের বাসিন্দা আবু মিয়ার পুত্র ইদন মিয়া (৩০) ও একই গ্রামের ধনু মিয়ার পুত্র রুবেল মিয়া (৩০) কে গতকাল মঙ্গলবার ভোর রাতের কোন এক সময়ে ভারতীয় সীমান্ত কাটাতারের বেড়া বিহীন একটি স্থান থেকে বিএসএফ সৈন্যরা আটক করে তাদের নিয়ে যায়। এদিকে বিজিবি ৫৫ ব্যাটেলিয়ানের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল এম জাহিদুর রশিদ মিডিয়া কর্মীদের জানান, পরদিন মঙ্গলবার দুপুরের দিকে রাজনগর সীমান্তের ১৯৮৮ মেইন পিলার রাজনগর সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ এর মাঝে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
প্রায় ১৫ মিনিট আলাপচারিতায় বিএসএফ তাদেরকে জানান যে, আটক ওই দুই বাংলাদেশীকে ভারতে অনুপ্রবেশের দায়ে ওদের হেফাজতে রাখা হয়েছে। ফলে ভারতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলাপের পর দুই বাংলাদেশীর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আটক ইদন মিয়ার পিতা আবু মিয়া সাংবাদিকদের জানান, সোমবার রাত ৯ টা থেকে নাকি ইদন ও রুবেলের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল্ল না পরবর্তীতে তারা জানতে পারেন ওদেরকে বিএসএফ ধরে নিয়ে গেছে।
বিএসএফ অভিযোগ, ইদুন ও রুবেল নাকি ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালাচ্ছিল। তবে বিজিবির পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের জানানো হয়েছে, আটক দুই বাংলাদেশীকে এখনও কোন অত্যাচার করেনি বিএসএফ।
এদিকে বিজিবি এখনও আশাবাদি যে, আটক দুইজনকে ভারতীয় কর্তাদের সাথে আলাপের পর বিএসএফ ছেড়ে দেয়ার প্রত্যাশায় রয়েছেন তারা।