বিভাগ: খেলাধুলা

টি-টোয়েন্টি সিরিজও দক্ষিণ আফ্রিকার

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
জিম্বাবুয়েকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করার পর তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ এক ম্যাচ হাতে রেখেই জিতে নিল দক্ষিণ আফ্রিকা। শুক্রবার সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সফরকারী জিম্বাবুয়েকে ছয় উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। সিরিজের প্রথম ম্যাচে প্রোটিয়ারা জয় পেয়েছিল ২৪ রানে। সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ অক্টোবর।
শুক্রবার পোচেফস্ট্রুমে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে সাত উইকেটে ১৩২ রান সংগ্রহ করে জিম্বাবুয়ে। দলের পক্ষে ২৮ বলে ৪১ রান করেন শন উইলিয়ামস। ১৬ বলে ২১ রান করেন অধিনায়ক হ্যামিলটন মাসাকাদজা। ২৯ রান করেন ব্রেন্ডন টেইলর। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে লুঙ্গি এনগিদি ২টি, ডেন পেটারসন ২টি, রব্বি ফ্রাইলিঙ্ক ২টি ও তাবরাইজ শামসি ১টি করে উইকেট শিকার করেন।
পরে দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যাট করতে নেমে ১৫.৪ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয়। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৩ রান করেন জেপি ডুমিনি। ২৬ রান করেন কুইন্টন ডি কক। ২২ রান করেন হেনরিক ক্লাসেন। জিম্বাবুয়ের বোলারদের মধ্যে ক্রিস এমপোফু ১টি, ব্রান্ডন মাভুতা ১টি ও শন উইলিয়ামস ২টি করে উইকেট শিকার করেন। ম্যাচ সেরা হন দক্ষিণ আফ্রিকার ডেন পেটারসন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
জিম্বাবুয়ে: ১৩২/৭ (২০ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা: ১৩৫/৪ (১৫.৪ ওভার)

ধকল সামলে বড় সংগ্রহের পথে ভারত

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
ঋষভ পন্ত ও অজিঙ্ক রাহানের ব্যাটে ম্যাচে ফিরল ভারত। দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষে চার উইকেটে ৩০৮ রান তুলেছে ভারত। পন্ত ৮৫ এবং রাহানে ৭৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন। ১৬২ রানে চার উইকেট হারানোর পর পঞ্চম উইকেটে ১৪৬ রান যোগ করে ভারতের ইনিংসকে তিনশোর গণ্ডি পার করান পন্ত ও রাহানে।
ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩১১ রানে বেঁধে রাখার পর ভারতের শুরুটা মধুর হয়নি। আগের ম্যাচে অভিষেক হওয়া পৃথ্বী শ এদিনও দারুণ ব্যাটিং করলেও মাত্র ৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন পৃথ্বীর ওপেনিং পার্টনার লোকেশ রাহুল। চেতেশ্বর পূজারাও চূড়ান্ত ব্যর্থ। মাত্র ১০ রান করেন প্রথম টেস্টে বড় রান পাওয়া সৌরাষ্ট্রের ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ক্যাপ্টেন কোহলি ব্যক্তিগত ৪৫ রানে জেসন হোল্ডারের শিকার। শুরুটা ভালো করেও হাফ-সেঞ্চুরির আগে ক্যারিবিয়ান অধিনায়কের বলে এলবিডব্লিউ হন বিরাট। তার পর থেকে দলকে টানেন রাহানে ও পন্ত।
প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে লাঞ্চের আগে ৩১১ রানে অল-আউট করার পর ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চে ভারত ১ উইকেট হারিয়ে ৮০ রান তুলেছিল। কিন্তু দ্বিতীয় সেশনে আরও ৯৩ রান যোগ করলেও মূল্যবান তিনটি উইকেট হারায় টিম ইন্ডিয়া। চা-বিরতিতে কোহলি অ্যান্ড কোং তাদের প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান তোলে। কিন্তু শেষ সেশনে কোনও উইকেট না-হারিয়ে ১৩৫ রান যোগ করে পন্ত-রাহানে জুটি।
এর আগে ৭ উইকেটে ২৯৫ রানে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এদিন সকালে মাত্র ১৬ রান যোগ করতে সক্ষম হয় ক্যারিবিয়ানরা। উমেশ যাদবের আগুনে স্পেলে ঝলসে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের লোয়ার অর্ডার। দেবেন্দ্র বিশু প্রথম দিনের শেষবেলায় রোস্টন চেসকে যথাযথ সঙ্গ দিলেও দ্বিতীয় দিনে মুহূর্তের জন্যও স্বচ্ছন্দ্যে ছিলেন না। উমেশ যাদব রণমূর্তী ধারণ করায় অসহায় আত্মসমর্পণ ছাড়া উপায় ছিল না বিশুর কাছে। ব্যক্তিগত ২ রানে যাদবের বলে বোল্ড হন তিনি।
রোস্টন চেস ইতিমধ্যে টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ ও ভারতের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। তিন অঙ্কে পৌঁছনোর পর চেসের মনোসংযোগে চিড় ধরে। সেই সুযোগে ব্যাট-প্যাডের ফাঁক দিয়ে নিখুঁত ইনস্যুইঙ্গারে চেসের স্ট্যাম্প উড়িয়ে দেন উমেশ এবং ইনিংসে পাঁচ উইকেটের বৃত্ত পূর্ণ করেন। চেস ১০৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ১৮৯ বলের ইনিংসে তিনি ৮টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন।

৩৫ রানেই শেষ মিসবাহ-আকমলরা

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
হতে পারে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ম্যাচ। কিন্তু যে দলে মিসবাহ উল হক-আকমলের মতো জাতীয় দলে খেলা ক্রিকেটার খেলেন সেই দল যখন মাত্র ৩৫ রানে অল আউট হয়ে যায়, তখন প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক!
পাকিস্তানের প্রথমশ্রেনীর লিগ কায়েদ-ই-আজম ট্রফির শেষ ছয় মৌসুমের পাঁচবারই শিরোপা উঠেছে নর্দান গ্যাস পাইপলাইন্স লিমিটেডের ঘরে। চলতি মৌসুমে প্রথম পাঁচ ম্যাচের মধ্যে চারটিতেই জয় পায় দলটি। একটিতে আছে ড্র। পুল ‘এ’তে দ্বিতীয় স্থানে থাকা দলের চেয়ে ১৫ পয়েণ্টে এগিয়ে শীর্ষে আছে তারা। সেই দলই কিনা নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে অলআউট হয় মাত্র ৩৫ রানে!
দলে আছে জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট খেলা মিসবাহ ও আদনান আকমল ছাড়াও তৌফিক উমর ও বিলওয়াল ভাট্টির মতো ক্রিকেটার।
ম্যাচে দলের অধিনায়ক মিসবাহ ডাক মারেন। শূন্য রানে ফেরেন ওপেনার তৌফিকও। আরেক ওপেনার ইমরান বাটও রানের খাতা খুলতে পারেননি। পুরো দলের মধ্যে দুই অঙ্কে যেতে পেরেছেন কেবল বিলওয়াল (১৫)। আদনান করেন তিন রান।
দলের হয়ে ব্যাট হাতে সবচেয়ে বেশি সময় উইকেটে থাকতে পারেন কেবল আলী ওয়াকাস। তিনি সর্বোচ্চ ৩৫ বল খেলে ৯ রান করেন। ১১ জনের পাঁচজনই শূন্যরানে ফেরেন। এমনকি অপরাজিত থাকা আসাদ আলীও খুলতে পারেননি রানের খাতা।
শুক্রবার (১২ অক্টোবর) মিসবাহর দলকে একাই গুঁড়িয়ে দেন হাবীব ব্যাংক লিমিটেডের হয়ে খেলা জুনাইদ খান। ২৮ বছর বয়সী এই বাঁহাতি পেসার ১৭ রানে ৭ উইকেট তুলে নেন। যা তার প্রথম শ্রেণীর ক্যারিয়ার সেরা পারফরম্যান্স। এছাড়া খুররম শেহজাদ ২টি ও উমর গুল নেন একটি উইকেট।

বৃষ্টি জিতিয়ে দিল ইংল্যান্ডকে

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজে বৃষ্টি বেশ ভালোই বাগড়া দিচ্ছে। তবে প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে গেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে তা ইংল্যান্ডের জন্য আশীর্বাদ হয়েই আসে। বৃষ্টি আইনে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে ৩১ রানে হারায় সফরকারী ইংল্যান্ড। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেছে বৃটিশরা।
ডাম্বুলায় শনিবারের (১৩ অক্টোবর) ম্যাচে লাসিথ মালিঙ্গার পাঁচ উইকেটের পরেও বেশ ভালো সংগ্রহ পায় ইংল্যান্ড। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৭৮ রান তোলে তারা। জবাবে লঙ্কানরা ৩১ ওভার ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪০ রান তুলতেই বৃষ্টি হানা দেয়। শেষ পর্যন্ত ডাক-ওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ৩১ রানে এগিয়ে থাকা ইংল্যান্ডকেই জয়ী ঘোষণা করা হয়।
প্রথমে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি সফরকারীদের। প্রথম ওভারেই ওপেনার জেসন রয় ফিরে যান। তবে তিন নম্বরে নামা জো রুট ৭১ ও ইয়ন মরগ্যানের ৯২ রানের ইনিংস সুবিধাজনক অবস্থানে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ডকে।
তবে এই শক্ত অবস্থান বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি ইংল্যান্ড। শেষ দিকে বেশ অগোছালো ভাবেই ব্যাট চালিয়ে আউট হতে থাকেন ব্যাটসম্যানরা। শেষ পর্যন্ত ২৭৮ রানে থামতে হয় তাদের।
১০ ওভার বল করে ৪৪ রান খরচায় ৫ উইকেট নেন মালিঙ্গা। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন নুয়ান প্রদীপ, আকিলা ধনঞ্জয়া, ধনঞ্জয় ডি সিলভা ও থিসারা পেরেরা।
জবাবে রান তাড়া করতে নেমে একেবারেই ভেঙে যায় লঙ্কানদের টপ অর্ডার। মাত্র ৩১ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসে। ক্রিস ওকস একাই ৩ উইকেট তুলে নেন। তবে কুশল পেরেরা ও ধনঞ্জয় ডি সিলভা ৩০ রানের জুটি গড়ে দলকে কিছুটা এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলেও বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি। দলীয় ৭৪ রানের মাথায় ফেরেন কুশল।
ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৭৮ বলে ৬৬ রান যোগ করেন থিসারা পেরেরা ও ডি সিলভা। এরপরই বৃষ্টি নামলে আর মাঠে গড়াতে পারেনি ম্যাচ। আর ইংলিশরাও জয় পেয়ে যায়।

সিলেটে নেপালকে বিদায় করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিন

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
নেপালের প্রয়োজন ছিল ৩-০ গোলের জয়। ২-০ হলেও সেমিফাইনালে উঠতে টস নামের ভাগ্যের দিকে তাকিয়ে থাকতে পারতো হিমালয়ের দেশটি। কিন্তু বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের এবারের আসরের টপ ফেভারিট ফিলিস্তিন সে সুযোগ দেয়নি ২ বছর আগে ঢাকা থেকে ট্রফি উড়িয়ে নেয়া দলটিকে। বিস্তারিত

সাফে বাংলাদেশের বিদায়

ক্রীড়াঙ্গন রিপোট :
জিতলেই সেমিফাইনাল, ড্র হলেও চলবে এমন সমীকরণ নিয়ে নেপালের বিপক্ষে মাঠে নেমে শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের হারের যন্ত্রণা নিয়ে মাঠ ছাড়লেন জামাল-মামুনুলরা। আর এই হারে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ থেকেই বিদায় নিল বাংলাদেশ। বিস্তারিত

ভুটানের বিপক্ষে জিতে সম্ভাবনা উজ্জ্বল হলো পাকিস্তানের

ক্রীড়াঙ্গন রিপোট :
বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম থেকে মোয়াজ্জেম হোসেন: সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে মোহাম্মদ রিয়াজ, হাসান বশির ও ফাহিম হাসানের গোলে ভুটানকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে পাকিস্তান। শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সাফ সুজুকি বিস্তারিত

একই ম্যাচে সেঞ্চুরি ও হ্যাটট্রিকের অনন্য কীর্তি

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
ব্যাট হাতে তিনি মাঠে থাকা নিঃসন্দেহে বোলারদের জন্য দুঃস্বপ্ন। বল হাতেও ঘুম হারাম করেন ব্যাটসম্যানদের। একজন সম্পূর্ণ যাকে বলে তিনি এক জন আন্দ্রে রাসেল। প্রমাণ দিলেন আরও একবার। শুধু প্রমানই নয়, গড়লেন অনন্য এক কীর্তিও। বিস্তারিত

মেসির হাতেই উঠলো বার্সেলোনার আর্মব্যান্ড

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
আন্দ্রে ইনিয়েস্তার বার্সেলোনা ছাড়ার পর একটি প্রশ্নই ঘুরে ফিরে সামনে আসে। কে হচ্ছেন বার্সেলোনার নতুন অধিনায়ক! অবশেষে ঘোষণা হলো কাতালানদের নতুন অধিনায়কের নাম। শুক্রবার বার্সেলোনার নতুন অধিনায়কের আর্মব্যান্ড উঠল দলটির প্রাণ ভোমরা লিওনেল বিস্তারিত

জয়ের শুরু করলো টটেনহাম

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ২০১৮-১৯ মৌসুমটা জয় দিয়েই শুরু করলো টটেনহাম হটস্পার। নিউক্যাসেল ইউনাইটেডকে তাদেরই মাঠে ২-১ গোলে হারায় মাউরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা। দলের হয়ে একটি করে গোল করেন জান ভারটনঘেন ও ডেলে আলী। আর স্বাগতিকদের বিস্তারিত