মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ আজ

কাজিরবাজার ডেস্ক :
দেশের ১০টি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে মাধ্যমিক (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ (৬ মে) প্রকাশিত হবে। সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলাফল হস্তান্তর করবেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এরপর বেলা ১টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন শিক্ষামন্ত্রী।
দুপুর ২টা থেকে ফলপ্রার্থী শিক্ষার্থীরা স্ব-স্ব বোর্ডের ওয়েবসাইট, মোবাইলের এসএমএস (সংক্ষিপ্ত বার্তা) ও নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ফল জানতে পারবেন।
১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্র“য়ারি পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের লিখিত বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৬ ফেব্র“য়ারি থেকে শুরু হয়ে ৪ মার্চ শেষ হয়।
এবারের মাধ্যমিক ও সমমাণ পরীক্ষায় সারাদেশে তিন হাজার ৪১২টি কেন্দ্রে মোট ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ১০ লাখ ২৩ হাজার ২১২ জন ছাত্র ও ছাত্রীর সংখ্যা ১০ লাখ ৮ হাজার ৬৮৭ জন।
ফল জানবেন যেভাবে: মোবাইলে এসএমএসে গিয়ে ঝঝঈ লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের এর নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাশের সন লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। উদাহরণ ঝঝঈ উঐঅ ১২৩৪৫৬ ২০১৮ পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নম্বরে। ফিরতি এসএমএসে জানিয়ে দেওয়া হবে ফলাফল।
মাদ্রাসা বোর্ডের জন্য উধশযরষ লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ড এর নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে আবার স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সন লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। উদাহরণ স্বরুপ উধশযরষ গঅউ ১২৩৪৫৬ ২০১৮ পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নম্বরে। এছাড়া এসএসসি ভোকেশনালের জন্য ঝঝঈ লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সন লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। যেমন : ঝঝঈ ঞঊঈ ১২৩৪৫৬ ২০১৮ পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নম্বরে।
উল্লেখ্য, গত বছর পাসের হার ছিল ৮০ দশমিক ৩৫ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছিল এক লাখ ৪ হাজার ৭৬১ জন। এ সংখ্যা আগের বছরের চেয়ে পাঁচ হাজার জন কম।
১৩ মে শুরু একাদশে ভর্তির আবেদন : এদিকে ১৩ মে থেকে শুরু হচ্ছে একাদশে ভর্তি আবেদন কার্যক্রম। এবারও একজন শিক্ষার্থী কমপক্ষে ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। অনলাইন এবং এসএমএস উভয় পদ্ধতিতেই আবেদন করা যাবে। ইতোমধ্যে এ সংক্রান্ত নীতিমালা জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এবার মেধা কোটা থেকে ভর্তি করা হবে। মেধা কোটা খালি থাকা সাপেক্ষে কোটাধারীদের সুয্গো দেওয়া হবে।
নীতিমালা অনুযায়ী, একজন শিক্ষার্থী যতগুলো কলেজে আবেদন করবে, তার মধ্য থেকে গেল বছরের মতো এবারও মেধা ও পছন্দক্রমের ভিত্তিতে একটি কলেজ নির্ধারণ করে দেয়া হবে। তবে ভর্তিতে আগের মতো এবারও স্কুল, কলেজ ও সমমানের প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ভর্তিতে অগ্রাধিকার পাবে।
একাদশে ভর্তির জন্য আবেদনের শেষ সময় ২৪ মে। তবে ফল পুনঃনিরীক্ষণে যাদের মার্কস পরিবর্তন হবে, তাদের আবেদন ৫ ও ৬ জুন প্রহণ করা হবে।
১০ জুন প্রথম পর্যায়ে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ভর্তি তালিকা প্রকাশ করা হবে । এরপর আরও একাধিক ধাপে ফল প্রকাশ ও মাইগ্রেশনসহ অন্য আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করে ২৭ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রম চলবে। ১ জুলাই থেকেশুরু হবে ক্লাস।