খালেদা জিয়ার নাতনি বলে কথা

koko-1422904587_52539কাজিরবাজার ডেস্ক :
হরতালের মাঝে সোমবার বাংলাদেশ ত্যাগ করেছেন সদ্য প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী ও দুই মেয়ে৷ মালয়েশিয়ায় স্কুলে পরীক্ষা থাকায় তাদের এই প্রস্থান বলে জানিয়েছে বিএনপি, যার সমালোচনা করেছেন অনেকে৷
গত বছরের ৫ জানুয়ারির বিতর্কিত নির্বাচনের বছর পূর্তিতে শুরু হওয়া বিএনপি জোটের আন্দোলন এখনো চলছে৷ নতুন নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলন জোরদার করতে অবরোধের পাশাপাশি হরতালও করছে এই জোট৷ আর তাদের আন্দোলনের কারণে পিছিয়ে গেছে এসএসসি পরীক্ষা৷ অথচ একই সময়ে মালয়েশিয়ার স্কুলে পরীক্ষা থাকায় সোমবার হরতালের মাঝেই দেশত্যাগ করেন সদ্য প্রয়াত কোকোর স্ত্রী ও দুই মেয়ে৷
সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেসবুকে অনেকে বিষয়টির সমালোচনা করেছেন৷ ক্যানাডা প্রবাসী সাংবাদিক সওগাত আলী সাগর লিখেছেন, ‘‘১৫ লাখ শিক্ষার্থীর পরীক্ষা বেগম খালেদা জিয়ার কাছে গুরুত্ব পায় না৷ কারণ তাদের সন্তানরা পরীক্ষার জন্য মালয়েশিয়া উড়ে যায়৷ সেখানে পেট্টোল বোমার আতঙ্ক নেই৷ পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা নেই৷ নিজের সন্তানদের নিরাপদে দূরে রেখে তারা দেশের সন্তানদের জীবনকে, ভবিষ্যতকে আগুনে পুড়িয়ে দগ্ধ করেন৷ এই তো রাজনীতি!”
অ্যাক্টিভিস্ট শারমিন জাহান পল্লবী  এই বিষয়টি তুলে এনেছেন তাঁর ফেসবুক স্ট্যাটাসে৷
তিনি লিখেছেন, ‘‘নিজের মেয়েদের পরীক্ষার জন্য চলে গেছে মালয়েশিয়া! আর বাংলাদেশে যারা এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে তাদের বেলায়, ‘‘কিসের পরীক্ষা কিসের কি, আগে আইনের শাসন৷” আসলেই তো, যারা জনগণ কে পেট্রল বোমা দিয়ে পুড়িয়ে জনগনের অধিকার আদায় করে তাদের কাছে তো আইনের শাসনই তো বড় হবে! আমরা ম্যাংগো পিপল কেন যে কিছু বুঝি না!!!”