স্বচ্ছ বিচার কাজ তরান্বিত করার লক্ষ্যে গ্রাম আদালত একটি মাইলফলক —————–ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় কমিশনার

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) মৃণাল কান্তি দেব বলেছেন, স্বচ্ছ বিচার কাজ তরান্বিত করার লক্ষ্যে গ্রাম আদালত একটি মাইলফলক ভূমিকা রাখছে। অসহায় দরিদ্র বিচার প্রার্থী মানুষের ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সরকার দেশে গ্রাম আদালত কার্যক্রম সম্প্রসারণ করেছেন। সুবিধা বঞ্চিত ও প্রান্তিক গ্রামীণ জনজীবনে মানুষের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধের সহজ নিষ্পত্তি ও বিচার ব্যবস্থায় প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে গ্রাম আদালত কাজ করছে।
তিনি গতকাল ৪ ডিসেম্বর সোমবার সকালে নগরীর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে স্থানীয় সরকার বিভাগ ও সিলেটের জেলা প্রশাসন আয়োজিত বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় সিলেট জেলার ৬টি উপজেলার গ্রাম আদালত প্রকল্পের চলমান কার্যক্রমের অগ্রগতি পর্যালোচনা এবং করণীয় শীর্ষক অর্ধবার্ষিক সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
সিলেটের জেলা প্রশাসক মোঃ রাহাত আনোয়ার এর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিচালক স্থানীয় সরকার বিভাগ মোঃ মতিউর রহমান, সিলেটের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতি ও ব্লাস্ট সিলেট ইউনিটের সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ লালা। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেটের স্থানীয় সরকার অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক দেবজিৎ সিংহ।
বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের সিলেট জেলা ফ্যাসিলিটেটর খন্দকার রবিউল আউয়াল নাসিমের পরিচালনায় চলমান কার্যক্রম উপস্থাপনা করেন বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের সিলেট জেলা সমন্বয়কারী শাহিদা সুলতানা ও সুনামগঞ্জ জেলা সমন্বয়কারী রোকনুজ্জামান আহমদ। দিনব্যাপী অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আব্দাল মিয়া, গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজ নজমুল ইসলাম, বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রদীপ সিংহ, বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিতাভ পরাগ তালুকদার, গোলাপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শরিফুল ইসলাম, গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার পাল, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আজিজ আহমদ সেলিম, ইমজা সভাপতি আল আজাদ, ব্লাস্ট সিলেট ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর এডভোকেট ইরফানুজ্জামান চৌধুরী সহ সিলেট জেলার ৬টি উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও তাদের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি