এমপিওভুক্তি খারাপ কার্যক্রম – অর্থমন্ত্রী

কাজিরবাজার ডেস্ক :
বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তির (মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার) জন্য নতুন অর্থবছরে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, ‘এখানে আমি একটি কথা বলতে চাই, এমপিওভুক্তি একটি খারাপ কার্যক্রম। আমরা এটি গ্রহণ করেছিলাম এবং চালিয়ে যাচ্ছি।’ মঙ্গলবার (৩ জুলাই) জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে তরিকত ফেডারেশনের নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীর এ সম্পর্কিত সম্পূরক প্রশ্নের তিনি এই মন্তব্য করেন।
এর আগে মাইজভান্ডারীর তার সম্পূরক প্রশ্নে এই বছরকে নির্বাচনি বছর উল্লেখ করে বর্তমান অর্থবছরে এমপিওভুক্তির জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চান।
এমপিওভুক্তি শিক্ষায় খুব একটা লাগে না বলে মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এতে শুধু কিছু শিক্ষক-কর্মচারীর বেতন দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষার উন্নয়নের জন্য এটা কোনও ভালো কার্যক্রম নয়। উপবৃত্তিতে অর্থ দেওয়া যায়, সেটা অনেক ভালো কাজ করে। শিক্ষার উন্নয়নের জন্য যদি আমরা স্কুল ফিডিংয়ের ব্যবস্থা করতে পারি, অনেক ভালো হবে। কেন আপনারা (সংসদ সদস্য) সেগুলোর দিকে নজর দেন না? বারবার এমপিওভুক্তি করতে চেষ্টা করেন?’
অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এমপিওভুক্তিতে যথেষ্ট জালিয়াতি ছিল। আমাদের শিক্ষামন্ত্রী অনেক কমাচ্ছেন। কিন্তু এটা খুব ভালো প্রোগ্রাম নয়। আমার এই অপিনিয়নটা আপনাদের কাছে উপস্থাপন করলাম। আপনারা এখন নিজেরা চিন্তা করে দেখুন।’
উল্লেখ্য, এর আগে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে কয়েকটি শর্ত দিয়ে নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে আলাদা বরাদ্দ রাখা হবে বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের শেষ বাজেটে এমপিও নিয়ে কোনও ঘোষণা না থাকায় ঢাকায় আন্দোলনে নেমেছেন নন-এমপিও বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীরা।