কেবল শিক্ষকরাই পারেন আলোকিত ভুবন গড়তে -ড. আবুল ফতেহ্ ফাত্তাহ

বিশ্বনাথ থেকে সংবাদদাতা :
মদনমোহন কলেজের অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ্ ফাত্তাহ বলেছেন, সারাক্ষণ শিক্ষাদান, আদর, শাসন আর অভিভাবকের দায়িত্বে যিনি নিয়োজিত থাকেন তিনিই শিক্ষক। কেবল মানুষ গড়ার কারিগর ওই শিক্ষকরাই পরেন আলোকিত ভুবন গড়তে। আর তাদেরই একজন হচ্ছেন জ্যোতি রাণী ভৌমিক। যিনি জীবনের দীর্ঘ ৩০টি বৎসর শিক্ষার জ্যোতি ছড়িয়েছেন শিক্ষার্থীদের মধ্যে। সেই জ্যোতি রাণী ভৌমিকের মতো শিক্ষকদের সম্মান না জানালে সমাজ কখনও আগাবে না, আমরার আগাবো না। কারণ দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিশ্বনাথ উপজেলার অলংকারী ইউনিয়নের টেংরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জ্যোতি রাণী ভৌমিক’র বিদায় (অবসর) উপলক্ষে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ফুল মিয়ার সভাপতিত্বে এবং প্রাক্তন ছাত্র মাজিদুল হক তায়েফ, মিনহাজ চৌধুরী ও রুহেল মিয়ার যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের বিদায়ী শিক্ষিকা জ্যোতি রাণী ভৌমিক। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্বনাথ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতেমা-তুজ-জোহরা, থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মো. শামসুদ্দোহা পিপিএম, অলংকারী ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম রুহেল, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা জমসেদুর রহমান, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুক্তাদির, বর্তমান প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাইয়ূম। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তিলাওয়াত করেন আব্দুস সামাদ আহসান, গীতা পাঠ করেন সহকারী শিক্ষিকা পপি রাণী পাল ও মানপত্র পাঠ করেন প্রাক্তন ছাত্র মাস্টার রিপন চন্দ্র পাল এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্থানীয় ইউপি সদস্য শায়েকুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজনীতিবিদ সেলিম আহমদ সেলিম, সিতার মিয়া, সহকারী শিক্ষক ইকবাল হোসেন, শিক্ষানুরাগী আলী হোসেন মোল্লা।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টেংরা জামে মসজিদের সাবেক মোতাওয়াল্লি আব্দুল ওয়াহিদ, মুরব্বি বাবরু মিয়া, হাজী আছকর আলী, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হেলাল চৌধুরী, রাজনীতিবিদ জাহেদুর রহমান, টেংরা বার্তার সম্পাদত শাহীন উদ্দীন, বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী ব্যবস্থাপক আল জাহান, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক নাথ চন্দ্র হরি, শিক্ষক তৈমুছ আলী, আব্দুল কুদ্দুস, এডভোকেট রফিকুল হক জুনেদ, ইউকে বাংলা ডাইরেক্টর আবু বকর, জবান উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালক ময়ুর উদ্দীন, সাবেক ছাত্র খালেদ আহমদ, ব্যবসায়ী চুনু মিয়া, কওছর মিয়া, জসিম উদ্দীন, আশফাকুর রহমান, আল রায়হান, মাহমুদ খান, মুরশেদুর রহমান, লিকন আহমদ, সুমন আহমদ, জুনেদ খান, আইয়ুব খান, শিপন আহমদ, লিপন আহমদ, মোনায়েম খান মুন্না, কামাল আহমদ, আরিফুর রহমান, ফুটবলার রিপন আহমদ, জুয়েল আহমদ রাজু, কামরুল আহমদ প্রমুখ।