হবিগঞ্জে র‌্যাব কর্মকর্তাদের অপসারণ দাবিতে মিছিল-সমাবেশ ও সড়ক অবরোধ

Habiganj Picture_05 November (2)হবিগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
হবিগঞ্জ সদর উপজেলা কটিয়াদী বাজারে এক সংবাদকর্মীকে মারধর করায় র‌্যাব কর্মকর্তা ও সদস্যদের তিন দিনের মধ্যে অপসারণ দাবিতে র‌্যাবের বিরুদ্ধে মিছিল, সড়ক অবরোধ ও স্মারকলিপি দিয়েছেন এলাকাবাসী। গতকাল বুধবার বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়কে ঘিরে এসব কর্মসূচী পালিত হয়। জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আশুরার কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কটিয়াদী বাজারে বাহুবল উপজেলার কাজীহাটা এবং হবিগঞ্জ সদর উপজেলার হাতিরথান গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব নিয়ে র‌্যাবের সাথে কথা কাটাকাটির জের ধরে ওই এলাকার সংবাদকর্মী দ্বীন ইসলামকে শত শত জনতার সামনে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের সদস্যরা। পরে র‌্যাব দ্বীন ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে তাকে হবিগঞ্জ সদর থানায় হস্তান্তর করে। ওই রাতেই পুলিশ প্রহরায় দ্বীন ইসলামকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদিকে গতকাল বেলা ১১টায় হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কটিয়াদী, সুলতানশীসহ ১০ গ্রামের লোকজন র‌্যাবের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে হবিগঞ্জ শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় বিক্ষোভকারীরা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে প্রধান সড়ক অবরোধ করে। এক পর্যায়ে অবরোধকারীরা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনের নিমতলায় জড়ো হয়ে পথসভা করে। এতে বক্তৃতা করেন হবিগঞ্জ সদর উপজেলার লস্করপুর ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ আলী, আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান হিরু, আব্দুল জলিল, বিএনপি নেতা মহিবুল ইসলাম শাহীন, আইনজীবী মইনুল ইসলাম দুলাল, ইউপি সদস্য মাহমুদ হাসান, আইয়ূব আলী, ফিরোজ আলী, আজগর আলী, তৈয়ব আলী, জহুর আলী প্রমুখ। বক্তারা বর্বরোচিত ঘটনার সাথে জড়িত র‌্যাব কর্মকর্তা ও সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। পরে বিক্ষোভকারীরা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেন। জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সফিউল আলম স্মারকলিপিটি গ্রহণ করেন। র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের কমান্ডিং অফিসার স্কোয়াডন লিডার মোসাব্বির রহমান জানান, দ্বীন ইসলাম র‌্যাবের সাথে মারামারি করতে উদ্যত হওয়ায় তাকে আটক করা হয়েছে।