কমলগঞ্জে প্রাইভেটকারসহ ৩ ডাকাত আটক

কমলগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগর কানিহাটি চা বাগানে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে সন্দেহমূলকভাবে প্রাইভেটকার অবরোধ করে চা শ্রমিকরা গণধোলাই দিয়ে ৩ জনকে আটক করে। এদের মধ্যে ১ জনের অবস্থা আশঙ্কা জনক। ৩ ডাকাতকে অস্ত্র ও ক্ষতিগ্রস্ত কারসহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় এ ঘটনাটি ঘটে।
পুলিশ ও চা বাগান সূত্রে জানা যায়, একটি প্রাইভেট কারে (ঢাকা মেট্রো-ক-০৩-৭৯৩৮) যোগে ৫ সদস্যের ডাকাতদল বিকালে ত্রিপুরা সীমান্তবর্তী ডবলছড়া চা বাগান এলাকায় প্রবেশ করে। ডবলছড়ায় তাদের চলাফেরা সন্দেহজনক হলে সন্ধ্যায় চা শ্রমিকরা ধাওয়া করলে ডাকাতদল দ্রুত কার নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে জানাজানি হলে ক্যামেলিয়া ডানকান ফাউন্ডেশন হাসপাতালের সামনের সড়কের লোহার গেইট বন্ধ করে চা শ্রমিকরা ডাকাতদলের কার অবরোধ করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। এসময় ডাকাতদল ভিন্ন পরিচয় দিয়ে থাকে। এ সময় চা শ্রমিকরা শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরীকে অবহিত করলে তিনি একদল পুলিশ নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যান।
পুলিশ ঘটনাস্থল যাওয়ার আগে গণধোলাই দেওয়া শুরু করার পর ২ ডাকাত পালিয়ে গেলেও তিন ডাকাতকে আটক করা হয়েছে। গণধোলাইয়ের শিকার ডাকাত শাহ আলম (২৮), আব্দুল মুকিত কিবরিয়া (২৬) ও শেখ আনোয়ার হোসেন (২৮) আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করছে পুলিশ। ডাকাত শেখ আনোয়ার হোসেনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আটক তিন ডাকাতের বাড়ি শ্রীমঙ্গল উপজেলায়।
শমসেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটক ডাকাত দলের কাছ থেকে কয়েকটি রাম দা, লোহার রড, কালো মুখোশ ও কালো প্যান্ট উদ্ধার করা হয়। আটক ৩জনই একাধিক ডাকাতি মামলার আসামী। তাদের বিরুদ্ধে ডাকাতির প্রস্তুতির মামলা দেওয়া হবে।
কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মোক্তাদির হোসেন পিপিএম গণধোলাই দিয়ে প্রাইভেট কারসহ ৩ ডাকাত আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন।