বঙ্গবন্ধু সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে স্বাধীনতা যুদ্ধের ডাক দেন – শিক্ষামন্ত্রী

গোলাপগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
শিক্ষাক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখায় ফুলসাইন্দ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের উদ্যোগে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপিকে গণসংর্বধনার দেওয়া হয়েছে। সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেছেন আপনারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে মহান জাতীয় সংসদে যাওয়ার সুযোগ তৈরী করায় এবং আওয়ামীলীগ সরকার গঠন করায় আজ আপনাদের সেবা করার সুযোগ হয়েছে। এই কৃতিত্ব সকল আমার নির্বাচনী এলাকা গোলাপগঞ্জ বিয়ানীবাজার মানুষের। জনগণ আমাকে মূল্যায়ন করেছেন বলে আজ আমি শিক্ষামন্ত্রী। বরিবার সকাল ১১টায় বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত বিশাল গণসংবর্ধনায় শিক্ষামন্ত্রী বলেন মহান মুক্তিযুদ্ধে ১৯৭১ সালে দেশের প্রতিটি ব্রীজ, কালভার্ট সরকারী বেসরকারী স্থাপনা জনসাধারণের বসতবাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংসস্তুপে পরিণত করেছিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। এ সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে মুক্তিগামী আপামর জনসাধারণ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। ৩০ লক্ষ শহীদের প্রাণের বিনিময়ে এ দেশ স্বাধীন হয়েছিল। স্বাধীনতার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ দেশকে সুখ শান্তি ও সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলা গড়ে তোলার লক্ষ্যে স্বাধীনতার যুদ্ধের ডাক দিয়েছিলেন। বর্তমানে জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার হাজার বছরের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্য নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। শিক্ষার ক্ষেত্রে, কৃষিখাতে, স্বাস্থ্য সেবাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দেশ এখন আগের চেয়ে অনেক সামনের দিকে আগাচ্ছে। কিন্তু বিগত জামায়াত বিএনপির দুর্নীতির কারণে দেশ অনেক পিছিয়ে গিয়েছিল। বর্তমানে এই দুর্নীতি পরায়ণতার কারণে দুদকের দেয়া মামলায় খালেদা জিয়া জেলে আর তার ছেলে সাজা মাথায় নিয়ে দেশের বাইরে পলাতক আছে। বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আলী রেজা খাঁন এর সভাপতিত্ত্বে ও অসিত চক্রবর্ত্তী, জবরুল আলিম ও মনিরুজ্জামান এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জোনাইদ আহমদ চৌধুরী ও মানপত্র পাঠ করেন বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী তাছমিনা আনজুম অর্পা। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ফুলসাইন্দ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ সুজা মোহাম্মদ জাকারিয়া, কেন্দ্রীয় যুবলীগ সদস্য এডভোকেট আব্বাস উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের কার্য নির্বাহী সদস্য সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরীফুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য টাওয়ার হেমল্যাটসের বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা মো. আব্দুল লতিফ খাঁন, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুল হামিদ সরকার, লক্ষ্মীপাশা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মাহমুদ আহমদ, গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অজামিল চন্দ্র নাথ, সিনিয়র সহসভাপতি এনামুল হক এনাম, জেলা যুবলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন দিলাল, বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক জহিরুল আলম শাহিন, লক্ষ্মণাবন্দ ইউপি আওয়ামীলীগ সভাপতি মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন সাবেক সভাপতি রোকন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক ছায়েদ আহমদ, আওয়ামীলীগ নেতা আলীম উদ্দিন বাবলু, নাজিমুল হক লস্কর, ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা জিল্লুর রহমান প্রমুখ।