খুলনায় আওয়ামীলীগের তালুকদার আব্দুল খালেক বিজয়ী

কাজিরবাজার ডেস্ক :
খুলনা সিটি করপোরেশনের নগর পিতা হলেন আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক। নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি ১ লাখ ৭৬ হাজার ৯০২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে জয় লাভ করেছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১ লাখ ৮ হাজার ৯৫৬ ভোট।
মঙ্গলবার ভোট গণনা শেষে তাকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।
এর আগে দুয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে খুলনা সিটি করপোরেশনের ভোটগ্রহণ। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে এই ভোট গ্রহণ শুরু হয়। বিরতিহীন ভোটগ্রহণ চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত।
সকাল ৮টা ১০ মিনিটের দিকে নগরীর ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের রহিমা খাতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু। ভোট দেয়া শেষে তিনি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ৩০টি ভোটকেন্দ্র থেকে বিএনপি প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। ভোটকেন্দ্রগুলোর অবস্থা খুবই খারাপ। ভোটাররা খুব ভয়ে আছেন। হামলা-সহিংসতার আশঙ্কায় অনেকে ভোট কেন্দ্রে আসতে ভয় পাচ্ছেন।
আওয়ামী লীগ ভোট ডাকাতি করে নির্বাচনে জয়ের চেষ্টা করতে পারে আশঙ্কা প্রকাশ করে মঞ্জু বলেন, ভোট ডাকাতি হলে এই নির্বাচন মেনে নেবেন না তিনি।
একই সময়ে নগরীর ২২ নম্বর ওয়ার্ডের পাইওনিয়ার গার্লস স্কুল কেন্দ্রে ভোট দেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক। ভোট দেয়া শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, শেষবারের মতো নগরবাসী আমাকে সেবা করার সুযোগ দেবেন এই বিশ্বাস আমার আছে। তবে ভোটের ফলাফল যাই হোক তা মেনে নেব।
এদিকে নির্বাচন চলাকালে জালভোট দেয়ার জন্য দুটি কেন্দ্র বন্ধ করে দেন প্রিজাইডিং অফিসার। এছাড়া বিএনপি মেয়র প্রার্থীর বেশ কয়েকটি নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। মঞ্জুর দুই এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নৌকায় জালভোট দেয়ার কারণে ৮৫টি ব্যালট পেপার বাতিল করা হয়েছে।
দলীয় প্রতীকের এ নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা তালুকদার আব্দুল খালেকের সঙ্গে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষের প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু। এছাড়া লাঙল প্রতীকে জাতীয় পার্টির এস এম শফিকুর রহমান মুশফিক, কাস্তে প্রতীকে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) মিজানুর রহমান বাবু ও হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মুজ্জাম্মিল হক মেয়র পদে লড়ছেন।
রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউনুস আলী জানান, খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মোট ভোটার রয়েছেন ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৯৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৪৮ হাজার ৯৮৬ ও নারী ২ লাখ ৪৪ হাজার ১০৭ জন।