মাথাভাঙ্গার বাঁকে বাঁকে

0
7

আবু আফজাল সালেহ

মাথাভাঙ্গা। কুলকুল বয়ে চলা
আমার প্রিয় নদী।
আমার শৈশব, বর্ণময় ছেলেবেলার ছবি-
মিশে আছে এ নদীটির জলে।
ভোরের ঋজুতায়, সীমান্তিক রেশ
জলকন্যার দৃপ্ত জলক্রীড়া
চাঁদিমা রাতে চাঁদের ছবি এঁকে চলে।
বর্ণনাতীত আমাকে কাছে টানে
প্রিয়ার সৌরভও আছে- এ নদীর তীরে।
শৈশবকাড়া ঘোলাস্রোত
নদীর গালায় ফোঁকরগলা গাঙশালিকের বাসা ডাকে,
শরতের ফটিক-জল, বকের দল, মাথার ওপর পায়রার ঝাঁকে,
মন পড়ে আছে সেখানে- মাথাভাঙ্গার বাঁকে বাঁকে।
বারবার ফিরে যেতে চাই-
তীরঘেঁষা সবুজ গ্রাম কাছে টানে।
সজিবতা ফিরে পাই
নদীর ঝিরঝির ¯িœগ্ধ বাতাসে, মাটির ঘ্রাণে।