কিশোর মন

0
18

তামিম আদনান

আমার মনটা শুধু যেন, কেমন কেমন করে!
ভাল্লাগে না শাসন বারণ, মন থাকে না ঘরে।
ইচ্ছে করে পাখির মতো; ওদের দলে উড়ি
হঠাৎ আবার ইচ্ছে করে, হতে নাটাই ঘুড়ি।
তপ্ত দুপুর মাঠটা উপুর, অবাক চেয়ে থাকি
ফুল ফসলের সাথে রে ভাই, ওদের ছবি আঁকি!
ধবল বকের সারি ডাকে, তিস্তা নদীর ঘাটে
আমার তখন ভালো লাগে না, মন বসে না পাঠে।
বাবা শুধু পড়তে বলে, আকাশ ছোয়ার আশায়;
জালনা দিয়ে তাকাই দেখি, রোদ পরিরা হাসায়!
ওদের দলে আসতে বলে, মেঘ পাখিদের ছাও,
হিমেল হাওয়া আমায় নিয়ে, ভাসায় যেন নাও।
এমন করে ওদের সাথে, খেলতে থাকি যখন,
মিনার থেকে সন্ধ্যা আযান আসে কানে তখন।
সূর্য ডুবে, চাঁদনি উঠে, আকাশ যেন হাসে!
কোথা থেকে হাসনা হেনার সুবাস জানি আসে!
খই ফুটে রোজ আকাশ জুড়ে, রাতটা হলে দুপুর,
কে যেন ওই আসে তখন, পায়ে দিয়ে নূপুর!
জোনাক গুলো কলমি তলে, খোদার জিকির করে,
আমি তখন সঙ্গী ওদের, জেগে আমার ঘরে।
হঠাৎ করে শুনি তখন, কী-সের শব্দ জানি!
কল কলানী সুরে তখন নড়ে পুকুর পানি!
আমার তখন ভয় করে না, মনে সাহস জাগে!
দরজা খোলার শব্দ শুনে, জিন, ভূতেরা ভাগে।
আব্বা তখন গভীর ঘুমে, আম্মু তারি পাশে,
এমন করে রাতের পরে, দিন গুলো ফের আসে।