সুনামগঞ্জ-৩ আসনে বইছে নির্বাচনী হাওয়া

0
4

মো. শাহজাহান মিয়া জগন্নাথপুর থেকে :
জগন্নাথপুর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত হয়েছে সুনামগঞ্জ-৩ আসন। সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রয়াত জাতীয় নেতা আলহাজ¦ আবদুস সামাদ আজাদ এ আসনে একাধিকবার সাংসদ ছিলেন। যে কারণে এ আসনটি আ’লীগের ঘাঁটি খ্যাত পরিচিত। এর মধ্যে সামাদ আজাদের মৃত্যু হলে উপ-নির্বাচনে আসনটি চলে গিয়েছিল বিএনপির দখলে। তখন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে এ আসনটি আবারো আ’লীগ পুনঃউদ্ধার করে। বর্তমানে এ আসন থেকে নির্বাচিত সাংসদ এমএ মান্নান সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।
জানা গেছে, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জগন্নাথপুর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে। এবারো আ’লীগ চাইছে এ আসনটি ধরে রাখতে আবার বিএনপি চাইছে দখলে নিতে। এর মধ্যে জাতীয় পার্টিও চাইছে সুযোগ বুঝে নতুন করে দখল করতে। তাই এবারের নির্বাচন হবে আ’লীগের মর্যাদা ধরে রাখার লড়াই ও বিএনপির দখলের লড়াই। এক্ষেত্রে দলীয় প্রার্থী মনোনীত হওয়ার উপর নির্ভর করছে আসনটি কার হবে। প্রার্থী বিচারে ভুল হলে উভয়ের ভরাডুবি হতে পারে। তাই জনগণ যাকে চান, তাকেই দিতে হবে। তা হলে জনগণ মেনে নিবেন না।
এদিকে-আগামী নির্বাচনে দলীয় প্রতীক পেতে প্রার্থীরা দৌঁড়ঝাপ শুরু করে দিয়েছেন। দলীয় হাই কমান্ডে চলছে তাদের জোর লবিং। এছাড়া সমর্থকরাও তাদের পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে দলের শীর্ষ নেতাদের কাছে তদবির করছেন। এলাকায় শুরু হয়ে গেছে নির্বাচনী আমেজ। ভোটাররাও কষতে শুরু করেছেন ভোটের হিসাব-নিকাশ। অপেক্ষা শুধু কে হচ্ছেন দলের প্রার্থী। দলীয় প্রার্থী মনোনীত হলে নিজেদের বিজয় নিশ্চিতের লক্ষ্যে নেতাকর্মীরা ঝাঁপিয়ে পড়বেন নির্বাচনী মাঠে।
এ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে সুনামগঞ্জ-৩ আসনে সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, আ’লীগের বর্তমান অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রয়াত জাতীয় নেতা আলহাজ¦ আবদুস সামাদ আজাদের পুত্র কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতা আজিজুস সামাদ আজাদ ডন ও যুক্তরাজ্য আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক। বিএনপির জমিয়ত নেতা সাবেক এমপি এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি এমএ মালেক খান, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি শিক্ষাবিদ লে. কর্ণেল অব. সৈয়দ আলী আহমদ ও যুক্তরাজ্য বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদ। জাতীয় পার্টি থেকে লন্ডন জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহ শাহীদুর রাহমান। এর মধ্যে কোন দলের কে হচ্ছেন দলের কান্ডারি। কে পাবেন সোনার হরিণ খ্যাত দলীয় মনোনয়ন। তা দেখার অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছেন দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয় জনতা। এরপর শুরু ভোটযুদ্ধ।