বালাগঞ্জে বিভিন্ন কর্মসূচির উদ্বোধনকালে জেলা প্রশাসক ॥ ভিক্ষুক পুনর্বাসনকে সরকার প্রাধান্য দিচ্ছে

0
11

শিপন আহমদ ওসমানীনগর থেকে :
সিলেটের জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান সোমবার দিনব্যাপি বালাগঞ্জে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেন। কর্মসূচির অংশ হিসেবে তিনি বালাগঞ্জ ডিএন উচ্চ বিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার এবং সততা স্টোর উদ্বোধন করেন। বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ছাত্র, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণের উপস্থিতিতে পরিচ্ছন্ন জনপদ-সবুজ জনপদ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। এ সময় তিনি বিদ্যালয়ের আভ্যন্তরীণ আর সিসি রাস্তার উদ্বোধনও করেন।
জেলা প্রশাসক রাধাকোণা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল কর্মসূচির উদ্বোধন এবং মজলিশপুর কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। কর্মসূচির ফাঁকে তিনি উপজেলার বিভিন্ন সরকারী দফতর পরিদর্শন করেন। এছাড়া একটি বাড়ি একটি খামার ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের নতুন ভবনের উদ্বোধন, ব্যাংক কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়, গ্রাম উন্নয়ন সমিতির উপকারভোগী সদস্যদের নিয়ে উঠান বৈঠক ও ঋণ বিতরণ করেন। বিকেলে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলাকে ভিক্ষুক মুক্তকরণ কর্মসূচির উদ্বোধন শেষে উপজেলায় কর্মরত বিভিন্ন দফতরে কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা ও সর্বস্তরের মানুষের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। পৃথক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন-ইউএনও আব্দুল হক। আয়োজিত অনুষ্ঠানগুলোতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান বলেন- কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠি তাদের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পেয়ে উপকৃত হচ্ছেন। অতিতের তুলনায় বর্তমান সরকারের আমলে স্বাস্থ্য খাতে আমূল পরিবর্তন এসেছে।
তিনি বলেন-পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা মানুষকে সুস্থ ও সবল রাখে। পরিবেশ রক্ষার্থে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। নিজেদের অবস্থান থেকে পরিবেশ রক্ষার্থে সবাইকে উৎসাহিত করতে হবে। তবেই পুরো দেশ সবুজ ও পরিচ্ছন্ন জনপদে রুপান্তরিত হবে। আজকের শিক্ষার্থীদের হাত ধরেই বিনির্মিত হবে সুন্দর আগামীর স্বপ্ন। আর তাদের মাধ্যমেই আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে পারব। ভিক্ষুকদের চাহিদা অনুযায়ী পুনর্বাসনের কথা চিন্তা করেই এ অঞ্চলকে ভিক্ষুকমুক্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে উল্লেখ তিনি বলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্প হিসেবে ভিক্ষুক পুনর্বাসনকে গুরুত্ব সহকারে প্রাধান্য দিচ্ছে বর্তমান সরকার। যারা পথে-পথে মানুষের দ্বারে-দ্বারে হাত পেতে ভিক্ষা করতেন তাদের মধ্যে এখন অনেকটাই সচ্ছলতা ফিরে এসেছে।
পৃথক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদাল মিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ আলী আসগর, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাকুর রহমান মফুর, এসিল্যান্ড সুমন কুমার দাস, সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মুনিম, বোয়ালজুড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনহার মিয়া, পূর্বপৈলনপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন, দেওয়ান বাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমূল আলম নজম, টিএইচও ডা: এসএম শাহরিয়ার ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রকিব ভুইয়া, বালাগঞ্জ ডিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম, একটি বাড়ি একটি খামার ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের উপজেলা সমন্বয়কারী দেবাংশু রঞ্জন রায়, বোয়ালজুড় বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিকী, প্রধান শিক্ষক রফিকুল আলম, শিক্ষক নেতা প্রতাপ চক্রবর্তী, সন্তোষ চক্রবর্তী, রাধাকোণা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাহেদা বেগম, সিএইচসিপি হেলাল আহমদ, ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলাম ও ওসি জালাল উদ্দিন প্রমুখ।