নারী চিকিৎসক ছিনতাইয়ের শিকার

0
13

স্টাফ রিপোর্টার :
নগরীর ব্যস্ততম এলাকা নয়াসড়কে ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন ডা: তাহমিনা মালিক শিমু নামের এক নারী। গত রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ছিনতাইর ঘটনা ঘটে।
ছিনতাইর শিকার ড: তাহমিনা মালিক শিমু জানান, ওইদিন ৬টার দিকে তিনি লামাবাজারস্থ বাসা থেকে রিক্সায় করে তার মেয়েকে নিয়ে ব্যক্তিগত কাজে নয়াসড়কে আসেন। কাজ শেষ করে ৬টা ২৩ মিনিটের দিকে আবার বাসার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিলে আগে থেকেই ওঁৎ পেতে থাকা ছিনতাইকারীরা তার ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। তিনি আরো জানান, ব্যাগে প্রায় ১৭ হাজার টাকা, ২টি মোবাইল ফোন, চাবি, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড সহ প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র ছিল। যার মধ্যে থেকে চাবি, ব্যাংক কার্ড ও জাতীয় পরিচয় পত্র নগরীর হাওয়াপাড়া এলাকায় পাওয়ায় যায়। রাত্রের দিকে রাস্তার পাশে ব্যাগটি পড়ে থাকতে দেখে একজন পথচারী জাতীয় পরিচয়পত্রের ঠিকানা দেখে তা পৌঁছে দিয়েছেন। এ সময় নয়া-সড়কের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সিসিটিভি ফুটেজ ঘটনাটি ধরা পড়ে।
সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, তাহমিনা মালিক নয়াসড়ক এলাকায় রিক্সা থেকে নামার পরেই একটি লাল রঙের মোটরসাইকেলে করে দুই ব্যক্তি তাকে অনুসরণ করে এসেছে। ৬টা ১১ মিনিটের দিকে তারা একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের আশে পাশে ঘোরাফেরা করে এবং ৬টা ২৩ মিনিটের দিকে যখন তাহমিনা মালিক কাজ শেষ করে মূল সড়কে আসছিলেন ঠিক তখনই ২জন ছিনতাইকারীর মধ্যে একজন তার ব্যাগটি ছিনিয়ে নেয় ও অপরজন মোটরসাইকেল নিয়ে তৈরি ছিল পালানোর জন্য।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘটনাটি এতো দ্রুতই ঘটে গেছে যে কোন কিছু বুঝার আগেই ছিনতাইকারীরা মোটরসাইকেলে করে নগরীর হাওয়াপাড়া এলাকার ভেতরের দিকে চলে গেছে। তাদের ধাওয়া করেও ধরতে পারা যায়নি বলেও জানান তারা।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গৌছুল হোসেন জানান, এ বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে এবং ছিনতাইকারীদের ধরার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে।