নগরী ও দক্ষিণ সুরমায় ১৫ মাদকসেবীর কারাদন্ড

0
4

স্টাফ রিপোর্টার :
নগরী ও দক্ষিণ সুরমায় ১৫ মাদক সেবীকে অর্থদন্ড ও বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করেছে র‌্যাব-৯ এর ভ্রাম্যমান আদালত। এ সময় মাদক সেবনকারীদের নিকট থেকে ২০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে ধ্বংস করা হয়।
শনিবার র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৯ এর সিনিয়র এএসপি সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাঈন উদ্দিন চৌধুরী জানান, কোতয়ালী এবং দক্ষিণ সুরমা থানা এলাকায় মাদক বিরোধী বিশেষ মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব-৯। অভিযানে অবৈধ মাদক রাখা ও সেবন করার অপরাধে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় ১৫ জন মাদক সেবনকারীকে জরিমানা ও বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করে র‌্যাব এর ভ্রাম্যমান আদালত।
জরিমানা ও বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে- হবিগঞ্জ জেলার দুলিয়াখাল এলাকার আনজর আলীর পুত্র হারুন মিয়াকে (৩২) ৩ দিনের, মোগলাবাজার থানার গোটাটিকর এলাকার মো. রুবেল মিয়ার পুত্র মো. ইমরান হোসেনকে (৩৫) ১ মাসের, সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার আনোয়ারপুর এলাকার কেরামত আলীর পুত্র মো. আমিন উদ্দিনকে (৩০) ১ মাসের, দক্ষিণ সুরমার লাউয়াই এলাকার আব্দুল্লার পুত্র মো. সুমনকে (২৮) ২৫ দিনের, নেত্রকোনা জেলার সাতারাঙ্গি এলাকার আব্দুল জায়েদের পুত্র মিজানুর রহমানকে (২২) ৩ দিনের, নোয়াখালী জেলার মাইজদী উপজেলার গ্রামটেয়ারহাট এলাকার সোলায়মানের পুত্র মো. রিপনকে (১৮) ৭ দিনের, সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা উপজেলার মামুন নগর এলাকার কাসেম মিয়ার পুত্র মো. শামীম মিয়াকে (৩০) ১ মাসের, সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার হোসেনপুর এলাকার সুবাদ আলীর পুত্র মো. রাশিদুলকে (৩২) ১৫ দিনের, সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার গইচ্চা এলাকার বোরহান উদ্দিনের পুত্র মো. আইন উদ্দিনকে (৩৫) ১ মাসের, সুনামগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার বদ্দারচর এলাকার মৃত সফিক মিয়ার পুত্র মো. শিপলু মিয়াকে (১৮) ২০ দিনের, গোলাপগঞ্জ থানার হেতিমগঞ্জ এলাকার মৃত আমির আলীর পুত্র মো. মেহেদী হাসানকে (২৫) ২০ দিনের, সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার হোসেনপুর এলাকার মৃত ইসলাম আলীর পুত্র মো. আবুল কালামকে (৩০) ১ মাসের, সুনামগঞ্জ জেলার তাহেরপুর উপজেলার খুয়াজপুর এলাকার মৃত আনছার আলীর পুত্র মো. শাহ আলমকে (৩৫) ৭ দিনের, বি-বাড়ীয়া জেলার নবীনগর উপজেলার মুক্তারামপুর এলাকার হারুন মিয়ার পুত্র মো. শাহজালাল মিয়াকে (৩৫) ৭ দিনের কারাদন্ড প্রদান করা হয় এবং ওহিদুর রহমান শামীম (২৫) নামের একজনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।