টিলাগড় থেকে দুই তরুণ নিখোঁজ

0
7

স্টাফ রিপোর্টার :
নগরীর টিলাগড় থেকে দুই তরুণ নিখোঁজ হয়েছেন। এদের একজনকে বুধবার থেকে এবং আরেকজনকে বৃহস্পতিবার থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে। নিখোঁজ তরুনের একজন হলেন মো. ইমাদ উদ্দিন সুহিন (২৪)। সুহিন মৌলভীবাজার কমলগঞ্জ শমসের নগরের সারংপুর গ্রামের মো.রফিক মিয়ার ছেলে। অন্যজন হলেন, মো.সাজ্জাদ আহমদ (২৪)। তিনি সিলেট এমসি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। সাজ্জাদ হবিগঞ্জের পশ্চিম নোয়াগাওয়ের ইদ্রিস মিয়ার ছেলে।
হঠাৎ করে প্রায় একসাথে একই এলাকা থেকে দুই তরুণের নিখোঁজের ঘটনায় এলাকায় নানা আলোচনার জন্ম দিয়েছে। তারা আসলেই নিখোঁজ নাকি তাদের কেউ অপহরণ করেছে বা তুলে নিয়ে গেছে সেই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে সবার মাঝে। দুই তরুণের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন তারা একেবারে নিরিহ প্রকৃতির ছেলে ছিলো।
কোথাও কোনো হাঙ্গামা বা কোনো রাজনীতি কিংবা আন্দোলনের সাথে তারা জাড়িত নয়। তারপরও কোনো তারা নিখোঁজ হলো তা তারা ভেবে পাচ্ছেন না। এ ব্যাপারে তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে এসএমপির শাহপরান থানায় আলাদা দুটি জিডি করা হয়েছে।
শাহপরান থানার ওসি আখতার হোসেন জানান, দুই তরুণ নিখোঁজের ঘটনায় থানায় জিডি হয়েছে। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে। এই মুহূর্তে এটি অপহরণ না নিখোঁজ তা বলা যাবেনা। তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে অপহরণ বা এই ধরণের কিছু বলা হয়নি। তবে যাই হোক পুলিশ তা গুরুত্বের সাথে দেখছে। নিখোঁজ মো.ইমাদ উদ্দিন সুহিনের মামা মো. হাফিজুর রহমান জানান, ৫ সেপ্টেম্বর থেকে সুহিনকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। এ ব্যাপারে শাহপরান থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। জিডি নম্বর ২৫৭। তিনি জানান, তার সুহিনের বাবা গ্রামের একজন সহজ সরল মানুষ। সে কারো সাথেও নেই পাচেও নেই। ছেলে সুহিনও বাবার মতো। তার কোনো শত্রু বা কারো সাথে কোনো বিরোধ আছে বলে তাদের জানা নেই। কোনো সে নিখোঁজ হলো তাও তারা বলতে পারছেন না। ছেলে কোনো খবর না পাওয়ায় তার মা পাগল প্রায়। পুলিশকে জানানোর পাশাপাশি তার পরিচিত বিভিন্ন জায়গার খোঁজ করছেন।
এদিকে নিখোঁজ সাজ্জাদের ভাই সুজাহিদ জানান, তার ভাই খুবই সাধারণ একজন ছাত্র। সে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ছাত্র আন্দোলনসহ কোনো কিছুর সাথে জড়িত নয়। তার নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় তারা বিস্মিত। এ ব্যাপারে শাহপরান থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। জিডি নম্বর ২৯১।