ইতালী প্রবাসী দুই কবির বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও গুণীজন সংবর্ধনা

0
28

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস একুশে ফেব্র“য়ারি মায়ের ভাষা বাংলা ভাষা অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে একুশে ফেব্র“য়ারি ছিল ঔপনিবেশিক প্রভুত্ব ও শাসন-শোষণের বিরুদ্ধে বাঙালির প্রথম প্রতিরোধ এবং জাতীয় চেতনার প্রথম উন্মেষ।
অমর একুশে, বাঙালির পথদিশা, একুশে হৃদয়াপ্লুত ঐশ্বর্য, প্রাণের স্পন্দন। তাই প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ঢাকা বই মেলার বিশাল আয়োজনের মধ্যে দেশ বিদেশের কবি লেখকদের লেখা কাব্যগ্রন্থ মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
গত ২৫ ফেব্র“য়ারি রবিবার ঢাকা বিকালে অমর একুশ গ্রন্থমেলায় ইতালী প্রবাসী আইরিন আসাদের লিখা কাব্যগ্রন্থ” ভালোবাসার সাল্মেট” এর মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের লেকচার থিয়েটারে অনুষ্টিত হয়।
সাহিত্য সংগঠন বাংলা কাব্য পরিবার’র আয়োজনে নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও গুণীজন সম্মাননা স্বারক ক্রেষ্ট প্রদান অনুষ্ঠান করা হয়।
ইতালী প্রবাসী আরেক তরুণী বিশিষ্ট লেখিকা মিনু আহমেদ কবি স্বীকৃতি স্বরূপ ভাষা সৈনিক সম্মাননা স্বারক “কাব্য পথিক ” গ্রহণ করেন।
অনুষ্টানে বাংলা কাব্য পরিবারের প্রধান উপদেষ্টা দেশবরেণ্য চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. হাসিনা বানু এর সভাপতিত্বে ও বিশিষ্ট কথাশিল্পী রোদেলা নীলার উপসস্থাপনায় প্রধান অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।
অনুষ্টানে আরো উপস্থিত হয়ে মরহুম ওমর ফারুক সম্মাননা স্বারক ”কাব্যরতœ” সম্মানে ভূষিত হন বাংলা সাহিত্যের বরপত্র কবি হেলাল হাফিজ ও দেশবরেণ্য আবৃত্তিশিল্পী শিমুল মুস্তাফা।
উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেণ্য লেজার চক্ষু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, কবি ও প্রবীন আবৃত্তিকার ডা. রশীদ হায়দার, জাতীয় কবি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক কবি টিপু রহমান।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন যে ১৯৫২ সালের এই দিনে শহীদদের শানিত ধারায় যে আলোকিত পথের উন্মোচন ঘটেছিল, সেই পথ ধরেই এসেছিল দেশের স্বাধীনতা।
আজ আত্মমর্যাদায় সমুন্নত এক মহান জাতি হিসেবে বিশ্বে মাথা উচু করে দাঁড়ানোর অন্তহীন প্রেরণার নাম একুশে ফেব্রুয়ারি, আর প্রতি বছর এই একুশের বইমেলা উদ্যাণে বিভিন্ন উদয়মান কবি লেখক শিল্পীদের বইয়ের মোড়ক উন্মোচন।
আমাদের বাংলা ভাষা আজ বিশ্বের মধ্যে আলোকিত করে রেখেছে তারা।অনুষ্ঠানে বাংলা কাব্য পরিবারের পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পল্লীর পরতে পরতে অবস্থান করে বাংলা সাহিত্যে কাজ করে যাবার সীকৃতি স্বরূপ ভাষা সৈনিক সম্মাননা স্বারক “কাব্য পথিক” পদক প্রায় ৩০ জনকে প্রদান করা হয়। অনুষ্টানে যারা কাব্য পথিক গ্রহণ করেন তারা হচ্ছেঃ আইরিন আসাদ, মিনু আহমেদ, রোদেলা নিলা,প্রিয়াংকা সরকার, সমুদ্র পাল, কুমকুম খাতুন, অলফ বড়ুয়া, মোঃ মিজান, সজীব চৌধুরী, নুসরাত ঝুমু, তাসমিয়া জান্নাত, সোনিয়া ইসলাম, রোকসানা সুখী, রিনা লাল, টিপু রহমান, চৈতালী ঝুমা বপ্নী, শাহীন আলম, আরিফুর রহমান টিপু,মোঃ জাহিদুর রহমান, শাহ মোঃ নিয়ামত উল্লাহ, মোঃ কামরুল হাসান, ইলিয়াছুর রহমান রুশ্নী, মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, মোসলেহ উদ্দিন, জালাল উদ্দিন শুক্তি, নীলোৎপল সিকদার, জান্নাতুল ফেরদৌসী কামনা, এ আই রানা চৌধুরী, মহি উদ্দিন খোকন, কুতুব উদ্দিন বখতিয়ার।
পরিশেষে বাংলা কাব্য পরিবারের প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. হাসিনা বানু সমাপনী বক্তব্যে রাখেন এবং উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। বিজ্ঞপ্তি