৩য় এনডিএফ ফেস্টিভ্যাল উপলক্ষে সিলেট জোনে বিতর্ক প্রতিযোগিতা ॥ আত্মবিশ্বাসী মানুষ গঠনের লক্ষ্যে কাজ করছে ন্যাশনাল ডিবেট ফেডারেশন বাংলাদেশ

0
27

শিক্ষার্থীদের কথা বলার জড়তা দূর করে সুন্দর উচ্চারণ ও বাচন ভঙ্গির মাধ্যমে যুক্তিবোধ সম্পন্ন, চৌকস ও আত্ম-বিশ্বাসী মানুষ গঠনের লক্ষ্যে ন্যাশনাল ডিবেট ফেডারেশন বাংলাদেশ(এনডিএফ বিডি) বাংলাদেশ ব্যাপী কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এনডিএফ’র ৩য় ফেস্টিভ্যাল উদযাপন উপলক্ষে ২দিন ব্যাপী আয়োজনের প্রথম দিনে এনডিএফ সিলেট জোনে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সিলেট বিভাগের ১৪টি স্কুল, ১৪ টি কলেজ এবং দুইটি বিশ্ববিদ্যালয়, একটি মেডিকেলের ৫টি দল অংশগ্রহণ করেছে। এনডিএফবিডি সিলেট ডিভিশনের কো-অর্ডিনেটর, ৩য় সিলেট ডিভিশনাল ডিবেট ফেস্টিভ্যালের আহবায়ক মোহাম্মদ খলিলুর রহমান এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মো. ফাহিম আহমদ। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় মডারেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মোহাম্মদ খলিলুর রহমান। বিচারকমন্ডলী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সিলেট ক্যাডেট কলেজের সহযোগী অধ্যাপক এ কে এম আজিজুল হক, জয়নাল আবেদীন, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেট সোসাইটির সভাপতি চৌধুরী আমির হামজা, নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি ডিবেট ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাজহার বিন আজহার, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেট সোসাইটির প্রচার সম্পাদক তানভীর খান, সাবেক সহ সভাপতি ধ্র“বরঞ্জন রায়, এমসি কলেজ ডিবেট সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম বিপ্লব, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব আলম সোহাগ।
উল্লেখ্য, ৩য় সিলেট ডিভিশনাল ডিবেট ফেস্টিভ্যাল ২০১৮-এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ২১ সেপ্টেম্বর সিলেট নগরীর রিকাবীবাজারস্থ কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে। এদিন কুইজ প্রতিযোগিতা এবং পাবলিক স্পিকিং (ইংরেজি ও বাংলা) অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সিলেটের জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান এবং চেয়ারম্যান হিসেবে উপস্থিত থাকবেন এনডিএফ বিডির চেয়ারম্যান এ কে এম শোয়েব। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় প্রতিযোগিরা ছাড়াও তাদের শিক্ষক এবং অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে দেশের স্বনামধন্য শিক্ষাবিদ, সংষ্কৃতিকর্মী, বুদ্ধিজীবী, বিতার্কিক ও বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন। উল্লেখ্য, দেশ ও সমাজ গঠনে জাতির কী কর্তব্য, সে বিষয়গুলোকে সামনে রেখে শিক্ষার্থীরা বিতর্কে অংশ নিয়েছে। দেশের কল্যাণের স্বার্থে জড়িত বিষয়গুলোই বিতর্কের মূখ্য বিষয়। বিজ্ঞপ্তি