সোবহানীঘাটে গাড়ীতে গৃহবধূ ধর্ষণের অভিযোগ

0
12

স্টাফ রিপোর্টার :
মামলা-মোকদ্দমার জের ধরে নগরীতে অস্ত্র ঠেকিয়ে কালো গ্লাসের মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে দুই সন্তানের সামনেই এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে দুর্বৃত্তরা। গত ৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে সোবহানীঘাট সবজিবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিত গৃহবধূ নাছিমা বেগম ২ দিন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে গতকাল সোমবার কোতোয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অভিযোগটি পেয়ে সোবহানীঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই কামালের কাছে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালী থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই শাহ মোঃ মোবশ্বির।
অভিযোগ থেকে জানা গেছে, বিয়ানীবাজার থানার মাটিজোরা গ্রামের তাজ উদ্দিনের স্ত্রী বর্তমানে টিলাগড় গোলাপবাগের ৮২ নং বাসার বাসিন্দা নাছিমা বেগম (২৮) তার ছেলে নুরুল আমিন ও আলামিনকে নিয়ে গত ৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সবজি কিনতে সোবাহানীঘাট সবজি বাজারে যান। সেখানে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা ৬ দুর্বৃত্ত গৃহবধূ নাছিমা ও তার দুই ছেলের মাথায় আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে কালো গ্লাসের হাইএস মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে তাকে চড় থাপ্পড় মেরে গালিগালাজ করে। এ সময় তাদের উপর থেকে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দেয় দুর্বৃত্তরা। এক পর্যায়ে চলন্ত গাড়ীতে সন্তানের সামনে অহিদুর রেজা মাসুম নাছিমা বেগমকে ধর্ষণ করে। প্রায় ৪/৫ ঘণ্টা নাছিমাকে নির্যাতন করে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ওইদিন রাত সাড়ে ১১ টার দিকে দুর্বৃত্তরা ওসমানী শিশু পার্কের সামনে তার ২ ছেলেসহ তাকে নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে নাছিমাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। উল্লেখ্য, গত ১১ নভেম্বর অহিদুর রেজা মাসুম ও জবলু নামের ২ লম্পটের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নাছিমা বেগম একটি মামলা দায়ের করেন। বর্তমানে মামলাটি উক্ত আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।