শেরপুর পয়েন্টে বিএনপির নেতাকর্মীদের দাঁড়াতেই দেয়নি পুলিশ, পথে পথে চেকপোষ্ট আটক ৭

0
6

মৌলভীবাজার থেকে সংবাদদাতা :
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া সোমবার বেলা ৩টা ১৫ মিনিটের সময় সিলেটের প্রবেশমুখ মৌলভীবাজারের শেরপুর পয়েন্ট অতিক্রম করেন। বেগম জিয়াকে স্বাগত জানাতে বিএনপি নেতাকর্মীদের শেরপুর পয়েন্টে দাঁড়াতেই দেয়নি পুলিশ।
নেতাকর্মীরা রাস্তার পাশে দাঁড়ালেই পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয় এমন অভিযোগ করেছেন জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমান।
তিনি অভিযোগ করেন, শেরপুরের পয়েন্টে সরকার পুলিশ দিয়ে আমাদের নেতাকর্মীদের আটক করে ও জেলা সদরসহ উপজেলাগুলোর বিভিন্ন স্থানে চেকপোষ্ট বসিয়ে নেতা কর্মীদের আসতে বাধা দেয়।
রবিবার রাত ১২ টা থেকে সোমবার বেলা ২টা পর্যন্ত বিএনপিনেতাসহ সহযোগী সংগঠনের ৭জন কে পুলিশ আটক করেছে।
সোমবার বেলা ২টার দিকে পুলিশ শেরপুর পয়েন্ট থেকে রাজনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হেকিম বক্স সুন্দর, প্রচার সম্পাদক জবলু তালুকদার, কামারচাক ইউনিয়নের যুবদলের সভাপতি আলাল মিয়া, শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রদলের আশফাক আহমেদকে আটক করে।
এর আগের রবিবার রাতে পুলিশ একই স্থান থেকে মৌলভীবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সৈয়দ ফয়সল আহমদ, সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি মো. ইমরান আহমেদ, মনুমুখ ইউনিয়নের বর্তমান মেম্বার সাজু মিয়াকে আটক করে।
তবে মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি তদন্ত নজরুল ইসলাম জানান, বিশৃংখলা এড়াতে তাদের আটক করা হয়েছে সিলেটের প্রবেশমুখ শেরপুরে মৌলভীবাজার থানার পুলিশ ও সাদা পোষাকধারী পুলিশ রবিবার রাত থেকেই শেরপুর চত্বরে অবস্থান নেয়। সকাল থেকে পুলিশকে এড়িয়ে সার্ভিস গাড়ী ও সিএনজি অটো রিক্সা কার লাইটেসযোগে জড়ো হতে থাকলে বিপুল সংখ্যক অতিরিক্ত দাঙ্গা সেখানে মোতায়েন করে মারমুখী অবস্থান নেয়।
বিচ্ছিন্ন ভাবে বিএনপি নেতাকর্মীরা সড়কে অবস্থান নেওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়। তবে পুলিশ বলছে, খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সড়কের পাশে জটলা করতে দেয়া হয়নি।