বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারে আগুন ॥ জিন্দাবাজার মুক্তিযোদ্ধা গলিতে অগ্নিকান্ডে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

0
8

স্টাফ রিপোর্টার :
নগরীর জিন্দাবাজারে মুক্তিযোদ্ধা গলিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩টি প্রিন্টিং প্রেসের দোকান ভস্মীভূত হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবী করছেন।
প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ গলির ভেতরের আর আর প্রিন্টার্সে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ আগুনের সূত্রপাত। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে পুড়ে যাওয়া দোকান গুলো হচ্ছে- সুমাইয়া প্রিন্টিং, আর আর প্রিন্টিং ও তাজিম অফসেট প্রেস।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা জানান, শুক্রবার তাদের মার্কেট বন্ধ ছিল। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আগুন লাগার খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে আসেন। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করছেন ব্যবসায়ীরা।
নগরীর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের বিভাগীয় উপপরিচালক রফিকুল ইসলাম বলেন, আগুন লাগার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক আমাদের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। দোকানে কাগজসহ অনেক দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন নিভাতে দেরি হয়েছে। শর্ট সার্কিটের কারণে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এতে ক্ষয়ক্ষতি প্রায় ৪০ লক্ষাধিক টাকা হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
এদিকে, মুক্তিযোদ্ধা গলিতে অগ্নিকান্ডের ঘটনার পরপর খবর পেয়ে ৩ টি প্রিন্টিং প্রেসের দোকান ভস্মীভূতস্থল পরিদর্শন করেছেন সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান এবং একই সময় সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। কামরান ও আরিফ দুইজনই ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া দোকান মালিকদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের সমবেদনা জানান। ঈদের আগে এই ক্ষতি সত্যিই ব্যবসায়ীদের জন্য সুখকর নয় বলে মন্তব্য করেন কামরান। ধৈর্য্য ধারণেরও আহবান জানান তিনি।
অপরদিকে, গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে নগরীর জিন্দাবাজারের একটি বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারে আগুন লাগায় জনমনে আতঙ্ক দেখা দেয়। ওভারসিজ মার্কেটের পার্শ্ববর্তী একটি বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারে এ আগুন লাগে। তবে এ ঘটনায় কোন ক্ষয় ক্ষতি হয়নি। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, জিন্দাবাজার-চৌহাট্টা সড়কের ওভারসিজ মার্কেটের পাশের বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারে আগুন লাগলে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তড়িৎ আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।