বিয়ানীবাজারে সবজি ব্যবসায়ীদের পৌর মার্কেটে স্থায়ীভাবে স্থানান্তর করা হচ্ছে

0
6

বিয়ানীবাজার থেকে সংবাদদাতা :
বিয়ানীবাজার পৌরসভার আওতাধীন পৌর মার্কেটে অস্থায়ীভাবে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়া সবজি ব্যবসায়ীরা স্থায়ীভাবে স্থানান্তরের সম্মত হয়েছেন। প্রায় তিন বছর পর আলোচনার মাধ্যমে সবজি ব্যবসায়ীদের পৌর মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করেছে পৌরসভা। গতকাল শনিবার পৌর মেয়র আব্দুস শুকুর, পৌর কাউন্সিলরগণ ও পৌর কর্মকর্তাদের দিয়ে পৌর মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় সবজি ব্যবসায়ীদের জন্য নির্ধারিত স্থান চিহ্নিত করেন।
এ সময় তারা মার্কেটের নির্দিষ্ট অংশ মাপযোগ করে সমানভাগে কোটা নির্ধারণ করেন। এর পূর্বে শুক্রবার রাতে পৌর মেয়র কার্যালয়ে মেয়র ও কাউন্সিলরদের সাথে সবজি ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিরা আলোচনা করেন। আলোচনায় প্রকৃত সবজি ব্যবসায়ীদের মার্কেটে স্থানান্তর করা, একজনের জন্য লটারির মাধ্যমে একটি কোটা বরাদ্দ দেয়া এবং প্রকৃত সবজি ব্যবসায়ীদের বাইরে যারা সড়কে বসে ব্যবসা করার চেষ্টা করতে তাদের বিরুদ্ধে পৌরসভা ব্যবস্থা নেবে। দীর্ঘ আলোচনায় উভয় পক্ষ সবজি বাজার স্থানান্তরে একমত হওয়ায় আগামী কয়েকদিনের মধ্যে সবজি ব্যবসায়ীরা মার্কেটের নির্ধারীত স্থানে চলে যাবেন।
পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, পৌর মার্কেটের সবজি বাজারের জন্য ৬০টি কোটা নির্ধারণ করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। প্রকৃত (প্রাক্তন) ৬০জন সবজি ব্যবসায়ীদের কোটা বরাদ্ধে পর যদি জায়গা থোকে তখন অন্যদের সুযোগ দেয়া হবে।
পৌর মেয়র আব্দুস শুকুর বলেন, আলোচনা ফলপ্রসু হয়েছে। সবজি ব্যবসায়ীরা পৌর মার্কেটের নির্ধারীত স্থানে যেতে সম্মত হয়েছেন। আমরা তাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব ও সুযোগ সুবিধা দিয়ে মার্কেটের জায়গা নির্ধারণ করা শুরু করেছি।
তিনি আরোও বলেন, মাছ ব্যবসায়ীদের সাথেও আমরা একইভাবে আলোচনা করে সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য সমাধানে পৌঁছাতে পারবো। শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে ব্যবসায়ীসহ সকল শ্রেণি পেশার মানুষের সহযোগিতা প্রয়োজন।
আলোচনায় অংশ নেন পৌরশহরের সবজি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুল মতিন এবং সাধারণ সম্পাদক আমুন মিয়া, ব্যবসায়ী নেতা লালন মিয়া ও মনা মিয়াসহ ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা। পৌরসভারপ পক্ষে পৌর মেয়ল আব্দুস শুকুর প্যানেল মেয়র ছাইফুল আলম ঝুনু, নাজিম উদ্দিন, রোশনারা বেগম, কাউন্সিলর সরাজ উদ্দিন, এমাদ আহমদ ও আকছার হোসেন উপস্থিত ছিলেন।