বিশ্বনাথে ফের সক্রিয় অপরাধীরা, ১৫ দিনে ৫ ছিনতাই, জনমনে আতঙ্ক

0
5

জাহাঙ্গীর আলম খায়ের, বিশ্বনাথ থেকে :
২০১৫ সালের পর বিশ্বনাথে উল্লেখযোগ্য ছিনতাইয়ের কোন ঘটনা ঘটেনি। তবে অহরহ বাসা বাড়িতে চুরির পাশাপাশি ডাকাতি অব্যাহত আছে। বিশেষ করে মোটর সাইকেল চুরির ঘটনাতো নিত্য দিনের খবর হয়ে দাঁড়িয়েছে। সংঘবদ্ধ চোরদের হাত থেকে রেহাই পাননি পুলিশ, সাংবাদিকসহ বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তারাও। ২০১৪ সালে তৎকালীণ ওসি’র নেতৃত্বে তালিকাভুক্ত ছিনতাইকারী, সন্ত্রাসী ও চিহ্নিত চোরদের গ্রেফতার করা হয়। কিন্তু বর্তমানে জেল থেকে ছাড়া পেয়ে ওই অপরাধীরা ফের সক্রিয় হয়ে উঠেছে। গত ১৫দিনে বিশ্বনাথে ৫ট ছিনতাইর ঘটনা ঘটেছে। ছিনতাইকারীদের হামলায় আলী হোসেন (১৯) নামের এক কলেজ ছাত্র গুরুতর আহত হয়ে পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা হলেও অন্য ভুক্তভোগীরা ভয়ে আইনের আশ্রয় নেননি। অভিযোগ রয়েছে, উপজেলায় পুলিশি তৎপরতা জোরদার না থাকায় দিনদুপরে অপরাধ করেও অপরাধীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হচ্ছে।
তবে থানার ওসি শামসুদ্দোহা বলেন, অপরাধ দমনে পুলিশি তৎপরতা জোরদার আছে। শুধু কালিগঞ্জের ঘটনায় মামলা হয়েছে এবং অপু নামের এক আসামিকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১৭ জুলাই সোমবার ইসলামী ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন শেষে দেওকলস যাবার পথে দুই নারী ছিনতাইর শিকার হন। ১৮ জুলাই সকালে বাইশঘর গ্রামের গণি মিয়ার স্ত্রী মিনা বেগম উত্তরা ব্যাংক থেকে টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কে ২ছিনতাইকারী তাকে আটকিয়ে নগদ টাকা, স্বর্ণের চেইন ও স্বর্ণের একটি আংটি নিয়ে যায়।
এরআগে গত ১০ জুলাই সোমবার বিকেলে বিশ্বনাথ-রশিদপুর সড়কে হেকিম শাহ এন্টারপ্রাইজের মালিক আমিনুর রহমান ছিনতাইয়ের শিকারহন। আগেরদিন ৯ জুলাই রবিবার ব্যংক থেকে টাকা উত্তোলন শেষে বাড়ি ফেরার পথে বিশ্বনাথ-রামপাশা সড়কে গড়গড়ি গ্রামের এক নারী ছিনতাইর শিকার হন। এসময় একটি মোটরসাইকেল ২ ছিনতাইকারী অস্ত্র দেখিয়ে নগদ ৮৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।
সর্বশেষ গত ২০ জুলাই বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্বনাথের কালিগঞ্জ বাজারেরর নাইস টেলিকমের মালিক আকবর আলী আক্কল (২৬) তার ছোটভাই কলেজ ছাত্র আলী হোসেন (১৯) ছিনতাইর শিকার হন। ওইদিন রাত ১২টার দিকে নিজ বাড়ি বাজিতপুরে যাবার পথে আলাপুরে গেলেই ২টি মোটর সাইকেলে ৬জন ছিনতাইকারী তাদের আক্রমণ করে। ছিনতাকারীদের হামলায় হাত ও পায়ের রগ কেটে গেলে আলী হোসেনকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।