বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দসহ ৫৫ নেতাকর্মীর জামিন

0
10

স্টাফ রিপোর্টার :
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনী প্রচারণার সময় নগরীর শাহজালাল উপশহর এলাকায় পুলিশের কাজে বাধা ও ২৪ নং ওয়ার্ড এলাকায় অপরপ্রার্থীর কার্যালয়ে আগুন দেয়ার ঘটনায় দায়ের করা দুটি মামলায় ৫৫ নেতাকর্মীকে জামিন দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার সকালে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে তারা জামিন আবেদন করলে বিচারক মফিজুর রহমান ভূঁইয়া তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।
জামিন প্রাপ্তদের মধ্যে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এম এ হক, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এমএ হক, জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম ও মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আব্দুল মুক্তাদিরসহ ৫৫ জন বিএনপি নেতাকর্মী রয়েছেন।
এর আগে মহামান্য হাইকোর্ট এই দুই মামলায় তাদের দুই সপ্তাহের আগাম জামিন দেন। দুই সপ্তাহের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পূর্বে বুধবার তারা মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। জামিন প্রাপ্ত অন্যরা হচ্ছেন, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি সালেহ আহমদ খসরু, জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী, শামীম আহমদ, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতাহ সিদ্দিকী, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সভাপতি মাহবুবুল হক চৌধুরী (ভিপি মাহবুব), বিএনপি নেতা ফাত্তাহ বকশীসহ বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদলের ৫৫ জন নেতা-কর্মী।
সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট মফুর আলী। আসামী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন, আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট মো. লালা, সাবেক সভাপতি এইউ শহীদুল ইসলাম শাহিন, এডভোকেট নুরুল হক, আতিকুর রহমান সাবু সহ অন্যান্য আইনজীবীরা।
উল্লেখ্য, গত ২২ জুলাই ভোরে বুরহান উদ্দিন-গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে স্থাপিত আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়রপদপ্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন দেয়া হয়। এঘটনায় শাহপরাণ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। এর আগে ২১ জুলাই বেলা দেড়টা থেকে নগরীর উপশহরস্থ উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এর কার্যালয়ে সামনে দলীয় নেতাকর্মীসহ অবস্থান নেন আরিফ। এ সময় সরকারী কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করে শাহপরাণ থানা পুলিশ।