নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শততম জন্মবার্ষিকী পালিত ॥ বঙ্গবীর ওসমানী আমাদের অহংকার

0
13

মহান মুক্তিযুদ্ধের মুক্তিবাহিনীর সর্বাধিনায়ক জেনারেল মুহাম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ওসমানী জাদুঘর এর উদ্যোগে ১ সেপ্টেম্বর শনিবার জন্ম শতবার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
কর্মসূচীর মধ্যে ছিল বঙ্গবীর জেনারেল মুহাম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি, বর্ণাঢ্য র‌্যালী, ছাত্র/ছাত্রীদের রচনা প্রতিযোগিতা, শিশু-কিশোরদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ আবৃত্তি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক সন্দীপ কুমার সিংহ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আজম খান। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লুৎফুর রহমান। বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের জনশিক্ষা বিভাগের কীপার ড. শিহাব শাহরিয়ার এর স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সূচিত অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী, প্রবীণ সাংবাদিক, কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, ভাষা সৈনিক মতিন উদ্দিন আহমদ জাদুঘর সিলেটের পরিচালক ড.মোস্তফা শাহজামান চৌধুরী, সেক্টর কমান্ডার ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ৭১এর সভাপতি এডভোকেট সরওয়ার আহমদ চৌধুরী আবদাল।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, ওসমানী স্মৃতি ট্রাস্ট সিলেট এর ট্রাস্টি স্পেশাল পিপি এডভোকেট নওশাদ আহমদ চৌধুরী, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি, ষ্টেশন ক্লাব লিমিটেড সিলেট এর সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন,ওসমানী মেমোরিয়াল ট্রাস্টের ট্রাস্টি ইয়াকুতুল গণি ওসমানী, বীর প্রতিক আব্দুল মালিক, সাবেক মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ভবতোষ বর্মন।
বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের শিক্ষা অফিসার সাইদ সামসুল করীম এর পরিচালনায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানী আমাদের গর্ব, আমাদের অহংকার। আমাদের গৌরবময় মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অসামান্য অবদান এবং সফল ও সুযোগ্য নেতৃত্বের মাধ্যমে বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানী ১৯৭১-এ সশস্ত্র মুক্তি সংগ্রামে অসাধারণ অবদান রেখেছেন। এ দেশ, এ জাতি তাঁর কাছে অপরিশোধ্য ঋণে আবদ্ধ। মহান মুক্তিযুদ্ধের এই বীর সেনানীর জন্ম শতবার্ষিকীকে সামনে রেখে আমাদের শপথ হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবো। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আগামী প্রজন্ম গড়ে উঠুক এবং তাঁর জীবন ও আদর্শ হোক আমাদের স্বপ্ন। শুরুতে পবিত্র কোরআন থকে তেলাওয়াত করেন মোহাম্মদ নাজিম খান এবং অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ওসমানী জাদুঘরের সহকারী কীপার জিয়ারত হোসেন খান।
বঙ্গবীর ওসমানী স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল এম.এ.জি ওসমানীর শততম জন্মবার্ষিকী গতকাল ১ সেপ্টেম্বর শনিবার বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে।
বঙ্গবীর ওসমানীর শততম উপলক্ষে শনিবার দরগাহে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার প্রাঙ্গণে সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত খতমে কোরআন, বাদ জোহর হযরত শাহজালাল (রহ.) জামে মসজিদে মিলাদ পরিচালনা করেন মাওলানা শামসুল ইসলাম ভাদেশ^রী। মিলাদ শেষে দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন হাফিজ মাওলানা আবু ইউসুফ চৌধুরী। এর আগে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার সংলগ্ন বঙ্গবীর ওসমানীর মাজারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। মিলাদ শেষে ফাতেহা পাঠ করে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামান করে দোয়া পরিচালনা করেন হাফিজ মাওলানা আবু ইউসুফ চৌধুরী।
বঙ্গবীর ওসমানী স্মৃতি সংসদের সভাপতি সৈয়ীদ আহমদ বহলুল সভাপতিত্বে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন কমিটির কমিটির আহবায়ক, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জেনারেল (অব.) হারুন অর রশীদ বীর প্রতীক, সদস্য সচিব ও সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ-’৭১ এর সিলেট বিভাগীয় সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট সরওয়ার আহমদ চৌধুরী (আবদাল), মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট রফিকুল হক, জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েল, মহানগর সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ভবতোষ বর্মন রায়, উদযাপন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক সিনিয়র সাংবাদিক আজিজ আহমদ সেলিম, ওসমানী জাদুঘরের সহকারী কিপার মোঃ জিয়ারত হোসেন খান।
মুক্তিযুদ্ধের মুক্তিবাহিনীর সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন কমিটির উদ্যোগে ১ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ১০টায় সিলেট নগরীর নাইওরপুলস্থ ওসমানী জাদুঘর প্রাঙ্গণ থেকে উদযাপন কমিটির আহবায়ক, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জেনারেল (অব.) হারুন অর রশীদ বীর প্রতীক এর নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ ছাড়াও, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন শ্রেণি পেশার নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী সহ ওসমানী অনুরাগীগণ অংশ গ্রহণ করেন।
এর আগে সকাল ৯টায় দরগাহে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার সংলগ্ন মহান মুক্তিযুদ্ধের মুক্তিবাহিনীর সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর মাজারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে ফাতেহা পাঠ করেন ও মরহুমের রূহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। খতমে কুরআন শেষে বাদ জোহর উদযাপন কমিটির উদ্যোগে দরগাহে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন কমিটির কমিটির আহবায়ক, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জেনারেল (অব.) হারুন অর রশীদ বীর প্রতীক, সদস্য সচিব ও সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ-’৭১ এর সিলেট বিভাগীয় সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট সরওয়ার আহমদ চৌধুরী (আবদাল), মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট রফিকুল হক, জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েল, মহানগর সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ভবতোষ বর্মন রায়, উদযাপন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক সিনিয়র সাংবাদিক আজিজ আহমদ সেলিম, ওসমানী জাদুঘরের সহকারী কিপার মোঃ জিয়ারত হোসেন খান, মিসেস মারিয়ান চৌধুরী, শামসুন নাহার মিনু, হাসনা হেনা চৌধুরী, এডভোকেট চৌধুরী আতাউর রহমান আজাদ, এডভোকেট হোসেন আহমদ, এডভোকেট গোলাম রাজ্জাক চৌধুরী জুবের প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি