কর্মী আটকের প্রতিবাদে উপশহর পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের নিয়ে আরিফের অবস্থান

0
8

স্টাফ রিপোর্টার :
গত শুক্রবার রাতে আটক হওয়া বিএনপির ২ কর্মীকে ছেড়ে দেয়ার দাবিতে নগরীর শাহজালাল উপশহরস্থ উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এর কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মীদের নিয়ে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। তবে শেষপর্যন্ত সেখান থেকে ব্যর্থ মনোরথেই ফিরতে হয়েছে তাকে। ওই ২ জন নিয়মিত মামলায় গ্রেফতার হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।
জানা যায়, শুক্রবার দিবাগত রাতে নগরীর ঝালোপাড়া থেকে রাসেল আহমদ ও সুমন আহমদ নামে বিএনপির দুই কর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিষয়টি জানতে পেরে গতকাল শনিবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে উপশহরস্থ উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এর কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফ। এসময় বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এমএ হক, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীম, সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর বিএনপি সভাপতি নাসিম হোসাইন, যুগ্ম সম্পাদক আজমল বখত সাদেক, সহ-সভাপতি ডা. নাজমুল ইসলাম, ছালেহ আহমদ খসরু, হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জি কে গৌছ, বিএনপি নেতা মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, সিলেট মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতাহ সিদ্দিকী, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
প্রায় ঘন্টাখানেক সড়কে বসে তারা ২ কর্মীকে ছেড়ে দেয়ার দাবি জানান। একপর্যায়ে মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার আজবাহার আলী শেখ সেখানে আসেন। তার সাথে বাগবিতণ্ডায় জড়ান আরিফ। পুলিশ কর্মকর্তা আজবাহার আলী শেখ বিএনপি নেতাদের জানান, ওই দুজনকে ওসমানীনগর থানার একটি নিয়মিত মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। সেখান থেকে যেন তাদের জামিন করানো হয়। এরপর আরিফসহ বিএনপি নেতাকর্মীরা সেখান থেকে চলে যান। আটককৃতরা নগরীর ঝালোপাড়া ১০৮নং বাসার রাসেল আহমদ ও সুমন আহমদ।
এদিকে দক্ষিণ সুরমা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রায়হান জানান, শুক্রবার রাতে ঝালোপাড়া থেকে রাসেল ও সুমন নামের ২ জনকে বিশেষ অভিযানে আটক করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল জানান, দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের সহযোগীতায় শুক্রবার রাতে ঝালোপাড়ায় অভিযান চালিয়ে রাসেল আহমদ ও সুমন আহমদ নামের যে ২ জনকে আটক করা হয়েছিল তা ওসমানীনগর থানা পুলিশ তাদেরকে আটক করে নিয়ে গেছে। তাদের বিরুদ্ধে ওসমানীনগর থানায় মামলা রয়েছে বলে জানান তিনি।