ওসমানীনগর বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ৬ নেতা ঢাকায় আটক

0
4

ওসমানীনগর থেকে সংবাদদাতা :
ওসমানীনগর উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ৬ নেতাকে আটক করেছে মতিজিল থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে ঢাকার মতিজিল এলাকার হোটেল উপবন ইন্টারন্যাশনালে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতর হলেন, ওসমানীনগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক নজরুল ইসলাম, যুগ্ম-সম্পাদক আব্দুর রউফ আব্দুল, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক-ফজল আহমদ জনি, উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য-সচিব রায়হান আহমদ, যুগ্ম-আহবায়ক সাহেদ আহমদ ও যুবদল নেতা মানিক মিয়া।
আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে আটককৃতদের আইনজীবী সিলেট জেলা জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক এডভোকেট আনোয়ার হোসেন বলেন, আটককৃত নেতারা ওসমানীনগর থানায় ষড়যন্ত্রমূলক দায়েরকৃত মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন আনার জন্য ঢাকায় গিয়েছিলেন। বুধবার উচ্চ আদালতে তাদের জামিন আবেদনের শুনানীর ধার্য্য তারিখ ছিল। কিন্তু মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হোটেল থেকে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে মতিঝিল থানায় নিয়ে যায়। তিনি আরও জানান, বিএনপি যাতে আসন্ন সংসদ নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করে আওয়ামীলীগ নানা মুখি ষড়যন্ত্রসহ বিভিন্ন অপকৌশল চালাচ্ছে। বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। এরই ধারাবাহিকতায় ওসামানীনগর –ও বিশ্বনাথেও পুলিশ কর্তৃক সাজানো মামলায় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের আসামী করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হচ্ছে।
প্রসঙ্গত গত ২ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত ১০টার দিকে উপজেলার গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের নিজ করনসী গ্রামে ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সৈয়দ কাওছার আহমদের বাড়িতে একটি বৈঠক থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওসমানীনগর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ মতাহির আলী, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও দয়ামীর ইউপি চেয়ারম্যান এসটিএম ফখর উদ্দিনসহ উপজেলা বিএনপির ও অঙ্গ সংগঠনের ১৬ নেতা-কর্মীদের আটক করা হয় । পরে তাদের বিরুদ্ধে ওসমানীনগর থানায় নাশকতার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং ০২।