ওসমানীনগরে কালবৈশাখী ঝড়ে নিহত ২, বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

0
7

ওসমানীনগর থেকে সংবাদদাতা :
ওসমানীনগরে স্মরণ কালের সব চেয়ে ভয়াবহ কালবৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে পড়েছে গোটা ওসমানীনগর এলাকা। বিদ্যুৎ সঞ্চালন বন্ধ রয়েছে গোটা উপজেলায়। গতকাল শুক্রবার বিকেলে প্রায় ২০ মিনিট স্থায়ী ঝড়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শত শত গাছ উপড়ে পড়ে। ঝড়ের তীব্র তাণ্ডবে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শতাধিক ঘরের টিনের চালা উড়ে যায়।
এ সময় উপজেলার তাজপুর ইউপির দশহাল গ্রামে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে নূরুল আলমের নির্মাণাধীন ঘরের টিন উড়ে গিয়ে গলা কেটে সাবিয়া বেগম (৪৫) নামের এক মহিলা ঘটনা স্থলেই নিহত হন। নিহত সাবিয়া বেগম বালাগঞ্জ উপজেলার বোয়ালজুরের সোনাপুর গ্রামের খালিছ মিয়ার স্ত্রী বলে জানিয়েছেন ওসমানীনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সহিদ উল্যা।
এছাড়া ঝড়ের সময় পানিতে ডুবে হাসান আহমদ নামের ১৬ মাসের এক শিশুর মৃত্যু হয়। মৃত হাসান উপজেলার উমরপুর ইউপির সিকন্দরপুর রং বরং গ্রামের সুমন আহমদের ছেলে বলে জানিয়েছেন ইউপি সদস্য আকলু মিয়া। সন্ধ্যায় পুলিশ নিহতরে নিজ বাড়ির পুকুর থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। এদিকে ঝড়ের সময় বজ্রপাতে উপজেলার বুরুঙ্গা ইউপির মুক্তারপুর হাওরের তেতইখালিতে পূর্বতিলা পাড়ার ইউছুফ আলীর ৪টি গরু মারা যায়।
কাল বৈশাখী ঝড়ে উপজেলার পল্লী বিদ্যুতের ৯টি ফিডার লাইনের অর্ধশতাধিক খুঁটি উপড়ে পড়ে ও বিদ্যুতের লাইন ছিঁড়ে গিয়ে গোটা ওসমানীনগর উপজেলা অন্ধকারে রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-১ এর জোনাল অফিসের ডিজিএম জহিরুল ইসলাম।
ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনিছুর রহমান বলেন, ঝড়ে ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে তবে কি পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে সে হিসেব এখনও নির্ধারণ করা যায়নি।