ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে পাঠানোর নামে প্রতারণা, জড়িত অবৈধ ট্রাভেল এজেন্সি

0
10

আগামী বছর ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে সিলেট থেকে পাঠানোর নামে মানব পাচারের অভিযোগ ওঠেছে। এই অভিযোগে অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব), সিলেট জোনের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক নুমেরী জামানের কাছে স্মারকলিপিও দেয়া হয়েছে।
আটাব’র অভিযোগ, কিছু সংখ্যক অবৈধ ট্রাভেল ব্যবসায়ী আইসিসি বিশ্বকাপ খেলার রেজিস্ট্রেশন, টিকেট এবং ভিসা সংক্রান্ত প্রলোভন দিয়ে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষ বিভ্রান্ত ও প্রতারিত হচ্ছেন।
জানা যায়, ইংল্যান্ডে আইসিসি বিশ্বকাপে ভিসা পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কতিপয় ট্রাভেল এজেন্সি মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা ভিসা নিশ্চিত করতে গ্রাহকদের দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা খরচ করিয়ে বিশ্বকাপের ম্যাচ টিকেটও কিনিয়েছে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে ভিসা হবে কিনা, তা একমাত্র ব্রিটিশ হাইকমিশনই বলতে পারে।
আটাব জানায়, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনপ্রাপ্ত ১৮০টি ট্রাভেল এজেন্সি রয়েছে সিলেট অঞ্চলে। কিন্তু এর বাইরে আরো বেশ কিছু অবৈধ ট্রাভেল এজেন্সি মানব পাচারে জড়িত। আটাব শুধুমাত্র সিলেট নগরীতেই অবৈধ ৭৫টি ট্রাভেল এজেন্সি চিহ্নিত করেছে। জেলা মানব পাচার কমিটির সভায় এ বিষয়টি আলোচনা করা হলেও প্রতিকার মিলেনি।
সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নাসিরুল্লাহ খান জানান, মানব পাচার রোধে জেলা প্রশাসনের সজাগ দৃষ্টি রয়েছে। আটাবের দেয়া তালিকা যাচাইবাছাই চলছে।
গত সপ্তাহে আটাব সিলেট জোনের সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিল এবং সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান খান রেজওয়ান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি বিশ্বকাপে খেলা দেখতে আগ্রহীদের বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট না হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।
এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য হচ্ছে, ভিসা সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত হাইকমিশনের এখতিয়ার। এ ব্যাপারে কারো সাথে চুক্তি না করার পরামর্শ দেন তারা। (খবর সংবাদদাতার)