মানসম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগ

0
3

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল। পাসের হার ও জিপিএ ৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা এবারও কমেছে। সার্বিকভাবে পাস করেছে ৬৬.৬৪ শতাংশ শিক্ষার্থী। গত বছর এ পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৬৮.৯১ শতাংশ, জিপিএ ৫ পেয়েছিল ৩৭ হাজার ৭২৬ জন। সেই হিসাবে এবার উচ্চ মাধ্যমিকে পাসের হার কমেছে ২.২৭ শতাংশ। আর পূর্ণাঙ্গ জিপিএ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে আট হাজার ৪৬৪ জন। দ্বাদশ শ্রেণির গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার পর্যায়ে পা রাখতে যাওয়া এই শিক্ষার্থীদের মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে মোট ২৯ হাজার ২৬২ জন। শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও এবার কমেছে। এবার ৪০০ প্রতিষ্ঠান থেকে সবাই পাস করেছে। গতবার এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৫৩২। তবে কেউ পাস করেনি, এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে। গতবার ৭২টি প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করেনি। এবার এমন প্রতিষ্ঠান ৫৫টি। আটটি সাধারণ বোর্ড এবং মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ডের অধীনে সারা দেশে দুই হাজার ৫৪১টি কেন্দ্রে এবার মোট ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় পাসের হার সামান্য বেড়েছে। তবে কমেছে জিপিএ ৫ পাওয়ার সংখ্যা।
বেশ কয়েক বছর ধরে পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ফাঁস হলেও এবার প্রশ্ন ফাঁসের কোনো ধরনের অভিযোগ ছাড়াই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ফল প্রকাশের আনুষ্ঠানিকতার পর প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় যে পদ্ধতি নেওয়া হয়েছে, তার প্রশংসা করে পুরো পরীক্ষার সময় কমিয়ে আনার কথা ভাবতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এখন পরীক্ষা শেষ করতে যে রকম প্রায় দুই মাস সময় লেগে যায়, তা কমিয়ে আনতে পারলে শিক্ষার্থীদের আরো বেশি মনোযোগী করা যাবে। তিনি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।
আমাদের দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানোর যে চেষ্টা চলছে তা আরো জোরদার করতে হবে। প্রাথমিক পর্যায় থেকে শিক্ষার্থীদের যোগ্য করে গড়ে তুলতে পারলে এ দেশে শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। যেসব প্রতিষ্ঠান খারাপ ফল করেছে, সেগুলোর দিকে বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া জরুরি। মানসম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগ দিতে না পারলে শিক্ষার মান নিশ্চিত করা যাবে না। আমরা আশা করি সেদিকে সরকার দৃষ্টি দেবে। শতভাগ পাস এমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কেন কমেছে, সে বিষয়টি খতিয়ে দেখার পাশাপাশি কেউ পাস করেনি এমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দিকেও দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন। যোগ্য শিক্ষক নিয়োগ দিতে না পারলে শিক্ষার মান যে উন্নত হবে না, এ উপলব্ধি সবারই থাকা দরকার।
এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন। তাদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণের পথ সুন্দর হোক। যারা উত্তীর্ণ হতে পারেনি, তাদের হতাশ হলে চলবে না। মনে রাখতে হবে, জীবনের অনেক পথ এখনো চলার বাকি। একবার হোঁচট খাওয়া মানে জীবন থেমে যাওয়া নয়।