গোলাপগঞ্জে হরতালে মাঠে নেই জামায়াত

গোলাপগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
হরতালের প্রথম দিনে গতকাল সারা দেশের ন্যায় গোলাপগঞ্জে জামায়াত-শিবিরের নেকর্মীদের তেমন কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি। কোনো ধরণের বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই হরতাল পালিত হয়েছে। তবে দিনভর উপজেলা সদরে সিএনজিচালিত অটোরিক্সাসহ গণপরিবহন চলাচল প্রায় স্বাভাবিক ছিল। তবে রাস্তায় ব্যক্তিগত গাড়ি কম চলেছে। প্রতিটি মার্কেট দোকানপাট খোলা ছিল স্বাভাবিক। উপজেলা সদরে সকাল ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত পুলিশের নিরাপত্তার চাদরে ডাকা ছিল পৌর চৌমুহনী। উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে পুলিশের দিন-রাত টহল। উল্লেখ্যে গত রবি সোম ও মঙ্গলবারের জামায়াতের ডাকা ৭২ ঘণ্টার হরতালের শেষ দিনে ৪টি গাড়ী ভাংচুর করেছে পিকেটাররা। গত সোমবার হরতাল চলাকালে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পিকেটিংসহ রাস্থায় অবরোধ করার খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ গোলাপগঞ্জ পৌর চৌমুহনীতে অবস্থান করলেও উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ প্রতিটি সড়কে টহল না থাকায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে জামায়াতের নেতাকর্মীরা। হরতাল চলাকালে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল ছিল। এদিকে হরতাল চলাকালে দুপুর ২টায় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা উপজেলা সদরের সামন থেকে মোটর সাইকেলে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশের আসার খবর পেয়ে পিকেটাররা সিলেট জকিগঞ্জ সড়কের চৌঘরী এলাকায় ৪টি সিএনজি অটোরিক্সার সামনের গ্লাস ভাংচুর করে চলে যায়। এ ঘটনার খবর পেয়ে পোলাপগঞ্জ থানার অসি শিবলী একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে আসলে তাদেরকে পাওয়া যায়নি। তবে গতকাল বুধবার রাত ১০টা পর্যন্ত উপজেলা জুড়ে কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।