মাধবপুরে মা সহ দুই শিশু খুনের ঘটনায় আটক ১

হবিগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
হবিগঞ্জের মাধবপুরে ঝুলন্ত অবস্থায় মা ও দুই শিশু সন্তানের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক জনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। তবে তার নাম-পরিচয় এখন বলা যাচ্ছে না। এছাড়া নিহত নারীর মাথার পেছনের দিকে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড না, আত্মহত্যা তা এখন বলা যাচ্ছে না। পুলিশ রহস্য উৎঘাটনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
ঘটনার পরপরই স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, হয়তো দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর মা নিজেই আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু নিহতের মাথায় আঘাত এবং ঘরের দরজায় তালাবদ্ধ থাকার কারণে সন্দেহের দানা বেধেছে। ময়নাতদন্তে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে এটি যে আত্মহত্যা নয়, সে ব্যাপারে মোটামোটি নিশ্চিত হওয়া গেছে তাদের কথায়।
এদিকে নিহত হাদিছার ভাই দ্বীন ইসলাম বলেন, বিয়ের পর থেকেই তার বোনকে মারধোর করতেন ভগ্নীপতি মজিদ। তার বোন এবং ভাগিনা-ভাগ্নিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি দ্বীন ইসলামের।
শুক্রবার (৩১ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের নিজনগর গ্রাম থেকে ব্যবসায়ী আব্দুল মজিদের স্ত্রী হাদিছা বেগমকে (২৪) ঝুলন্ত এবং তার দুই বছরে মেয়ে মীম ও সাত মাসের ছেলে মুজাহিদুল ইসলামের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।