সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসি ১ জনের যাবজ্জীবন

সুনামগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি ও একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
সোমবার (১৩ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ রায় দেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল্লাহ আল মামুন।
ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হল সদর উপজেলার লালপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হেকিমের ছেলে ইদ্রিস মিয়া (২৮) ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হল তার ভাই বাবুল মিয়া (২২)। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অপর আসামি নজরুল ইসলামকে খালাস দেওয়া হয়েছে।
আদালত সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদী নোয়াবা মিয়ার ভাই আব্দুল করিমকে ২০১০ সালের ২৭ আগস্ট সন্ধ্যায় ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে ইদ্রিস মিয়া। বাদী নোয়াবা মিয়ার ছোট বোন মনোয়ারাকে ইদ্রিস মিয়ার ভাই সিদ্দিক মিয়ার সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের কয়েক মাস পর থেকে মনোয়ারার ভাই নোয়াবাকে যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে সিদ্দিকসহ তার পরিবারের লোকজন।
যৌতক না পেয়ে মনোয়ারাকে নির্যাতন করত তার স্বামীর বাড়ির লোকজন। এ নিয়ে কয়েকবার গ্রাম্য সালিশে নির্যাতন না করার কথা বলা হলেও তারা নির্যাতন চালিয়ে যেত। এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলতে থাকে।
পরে ২০১০ সালের ২৭ আগস্ট সিদ্দিক মিয়ার ভাই ইদ্রিস মিয়ার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় আব্দুল করিমের। এর জের ধরে ওইদিন সন্ধ্যায় সদর উপজেলার লালপুর গ্রামের পয়েন্টে তাকে একা পেয়ে
ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়। ওই দিন রাতে নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে সুনামগঞ্জ সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দেন।
বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট প্রদীপ কুমার নাথ। রাষ্টপক্ষের আইনজীবী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এপিপি সুহেল আহমদ ছইল মিয়া। আসামিপক্ষের আইনজীবী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট হুমায়ুন মঞ্জুর চৌধুরী ও অ্যাডভোকেট আমিরুল হক। আসামি তিনজন বর্তমানে আটক রয়েছেন।