মাধবপুরে সহপাঠীরা বন্ধ করলো স্কুলছাত্রীর বিয়ে

হবিগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
হবিগঞ্জের মাধবপুরে ‘৯৯৯’ এ ফোন করে স্কুলছাত্রীর বিয়ে বন্ধ করলো সহপাঠীরা। রোববার দুপুরে এ বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। সে উপজেলার নোয়াপাড়া সৈয়দ সঈদ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী।
স্থানীয়রা জানান, উপজেলার উত্তর শাহপুর গ্রামের মতুল আলীর মেয়ের সঙ্গে সুনামগঞ্জ জেলার ধর্মপাশা উপজেলা মাইজবাড়ী গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে আলমগীরের সাথে বিয়ের দিন ধার্য্য হয়। ধার্য্য তারিখ অনুযায়ী রোববার দুপুরে তার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল। বিষয়টি ওই স্কুলছাত্রীর সহপাঠীরা ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে জানায়। পরে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে মাধবপুর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো. মোকলেছুর রহমানকে বিয়ে বন্ধ করার নির্দেশ দেন। খবর পেয়ে তিনি সাথে সাথে মাধবপুর থানা পুলিশ ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে নিয়ে বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দেন।
মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জান্নাত সুলতানা জানান, খবর পেয়ে বর পক্ষ পালিয়ে গেছে। স্কুলছাত্রীর অভিভাবক মুচলেকা দেয় মেয়ের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না।