জনমত প্রমাণ করে কামরান নগরবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন – হাবিবুর রহমান সিরাজ

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ বলেছেন জনমত প্রমাণ করে কামরান সিলেট নগরবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। জাতিকে আরো সামনে নিয়ে যেতে শেখ হাসিনা সরকারের বিকল্প নেই। দেশ ও জাতির স্বার্থে আগামী নির্বাচনে আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার সিলেটে যে উন্নয়ন করেছে, তা অতীতে কেউ করতে পারেনি। সেজন্য দেশের সামগ্রীক উন্নয়ের অবদান জননেত্রী শেখ হাসিনার। এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হলে আগামীতে নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে। দেশের উন্নয়নে নৌকা তথা আওয়ামীলীগের কোন বিকল্প নাই। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সিলেট সিটি মেয়র আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে নির্বাচিত করতে হবে। পাশাপাশি তিনি সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি ২৫ জুলাই বুধবার বিকেলে সিলেট নগরীর মির্জা জাঙ্গাল সহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে নৌকা মার্কার গনসংযোগ ও পথসভায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন ।
পথসভায় উপস্থিত ছিলেন, মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি এম শাহরিয়ার কবির সেলিম, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক শামীম রশীদ চৌধুরী, মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক নাজমুল আলম রোমেন, জেলা ও মহানগর শ্রমিকলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, জেলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল জলিল, সিরাজুল ইসলাম, মো হারুন, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর খান, প্রচার সম্পাদক প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন, ক্রীড়া সম্পাদক শাহ আলম শুরুক, সহ-সম্পাদক নুর এ আলম , সমরেন্দ্র সিংহ , রফিক আহমেদ, ব্যাংক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি মোফাক্কারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ, বিদ্যুৎ শ্রমিকলীগ আব্দুল মোস্তাকিম, নেতা শুক্কুর আহমদ , ছাদিকুর রহমান ছাদিক, লিয়াকত হোসেন, জহিরুল ইসলাম, আব্দুল লতিফ, পানি উন্নয়ন বোর্ড সিবিএর সভাপতি মোহাম্মদ রেহান, মহানগর শ্রমিকলীগের অন্যতম নেতা গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, কৃষি ব্যাংক সিবিএর সভাপতি আছকির মিয়া, সাধারণ সম্পাদক শাহনুর আলী , জনতা ব্যাংক সিবিএর সাধারণ সম্পাদক মীর ইয়াকুত আলী দুলাল, সদর উপজেলা শ্রমিকলীগের আব্দুল জলিল, জয়নাল আবেদীন, খলিলুর রহমান, অপূর্ব কান্তি দাস, বশির আহমদ,ইলিয়াছ আলী প্রমুখ সভাপতি মকবুল হোসেন খান, অর্থ সম্পাদক আব্দুল হক,যুব শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক আদনান খান হেলাল, কার্যকরী সভাপতি কার্তিক দত্ত, জালাবাদ থানা শ্রম সম্পাদকক নিয়াজ খা, মহানগর শ্রমিকলীগের অন্যতম নেতা ফরিদ আহমদ হোটেল রেস্তোরা অন্যতম নেতা মো. ইদ্রিস মিয়া। বিজ্ঞপ্তি