৮০টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ ॥ ১৩৪টি ভোট কেন্দ্রের তালিকা প্রকাশ

স্টাফ রিপোর্টার :
সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ভোটকেন্দ্রের তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। এবারের নির্বাচনে নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ৩ লাখ ২১ হাজার ৭৩২ জন ভোটারের জন্য মোট ১৩৪টি ভোটকেন্দ্র থাকবে। এসব ভোটকেন্দ্রের মধ্যে মোট ভোট কক্ষের সংখ্যা ৯২৬টি। অস্থায়ী ভোটকক্ষের সংখ্যা ৩৪টি।
নগরীর ১নং ওয়ার্ডে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪টি। কেন্দ্রগুলো হল, সরকারী আলিয়া মাদরাসায় ২ টি ভবনে ৩ টি ভোট কেন্দ্র এবং জালালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
২নং ওয়ার্ডে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৩টি। কেন্দ্রগুলো হল, মদন মোহন কলেজে ২ টি কেন্দ্র এবং দাড়িয়াপাড়াস্থ রসময় মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়।
৩নং ওয়ার্ডে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৫টি। কেন্দ্রগুলো হল, পুলিশ লাইন উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩ টি ভোট কেন্দ্র এবং ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজে ২ টি ভোট কেন্দ্র।
৪নং ওয়ার্ডে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪টি। কেন্দ্রগুলো হল, আম্বরখানা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে ২ টি ভোট কেন্দ্র এবং আম্বরখানা সরকারি কলোনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২ টি কেন্দ্র।
৫নং ওয়ার্ডে ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৭টি। কেন্দ্রগুলো হল, খাসদবীর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২ টি, ইলেকট্রিক সাপ্লাই রোডস্থ স্কলার্সহোম প্রিপারেটরি স্কুল, খাসদবীরস্থ জামেয়া মাদিনাতুল উলুম দারুস সালামে ২ টি ভোটকেন্দ্র, হাজারীবাগস্থ এভারগ্রীণ একাডেমি এবং গ্রীণ ফেয়ার কিন্ডার গার্ডেন।
৬নং ওয়ার্ডে ভোটগ্রন্দ্র ৪টি। কেন্দ্রগুলো হল, চৌকিদেখীস্থ বিলাস কমিউনিটি সেন্টার, শাহপরান (রহ.) প্রি-ক্যাডেট একাডেমি এবং আনোয়ার মতিন একাডেমিতে দুটি কেন্দ্র।
৭নং ওয়ার্ডে ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৮টি। এগুলো হল, সুবিদবাজারস্থ টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট সংলগ্ন বিদ্যালয়ের (নতুন ভবন), একাডেমিক ভবনে দুটি কেন্দ্র, হলি সিটি পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, জালালাবাদ আবাসিক এলাকাস্থ আব্দুল গফুর ইসলামী আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজে দুটি ভোট কেন্দ্র, পশ্চিম পীরমহল্লা গৌছ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং গৌছুল উলুম জামেয়া ইসলামিয়া।
৮নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৮টি ভোট কেন্দ্র। কেন্দ্রগুলো হচ্ছে, পাঠানটুলাস্থ শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া কামিল মাদরাসায় ৩টি কেন্দ্র ,নোয়াপাড়াস্থ সিটি মডেল স্কুল, ব্রাহ্মণশাসন বীরেশ চন্দ্র উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং তারাপুরস্থ মদন মোহন কলেজে দুটি কেন্দ্র।
৯ নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৭টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, পাঠানটুলা দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ে দুটি ভোট কেন্দ্র, বাগবাড়িস্থ এতিম স্কুলে দুটি ভোট কেন্দ্র, বাগবাড়িস্থ বর্ণমালা সিটি একাডেমি, বিদ্যারণ্য স্কুল ও মহিলা কলেজ এবং সুবিদবাজারস্থ আনন্দ নিকেতন।
১০নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৬টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, ঘাসিটুলাস্থ জালালাবাদ স্কুল এন্ড কলেজ, ঘাসিটুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ডহর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং মঈন উদ্দিন আদর্শ মহিলা কলেজে দুটি ভোট কেন্দ্র।
১১নং ওয়ার্ডে ভোটকেন্দ্র আছে ৫টি। এগুলো হচ্ছে মধুশহীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, ভাতালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং লামাবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
১২নং ওয়ার্ডে ৪টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে। কেন্দ্রগুলো হল, শেখঘাটস্থ মঈনুন্নেসা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, শেখঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং শেখঘাটস্থ সরকারি বাক শ্রবণ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়।
১৩নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৩টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল জামিয়া ইসলামিয়া মাদানিয়া কাজির বাজার মাদরাসা, মির্জাজাঙ্গাল বালিকা উচ্চবিদ্যালয় এবং চাঁদনীঘাটস্থ সারদা স্মৃতি ভবন।
১৪নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৪টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, জিন্দাবাজারস্থ সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ, কালীঘাটস্থ সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং চালিবন্দরস্থ হাকিম বশীরুল হক ছাত্রাবাস।
সিসিকের ১৫নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৪টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, বন্দরবাজারস্থ দুর্গাকুমার পাঠশালা, মিরাবাজারস্থ শাহজালাল জামিয়া ইসলামিয়া স্কুল এন্ড কলেজে দুটি কেন্দ্র এবং মিরাবাজারস্থ কিশোরী মোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (বালক শাখা)।
১৬নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৪টি ভোটপ্রন্দ্র। এগুলো হল তাঁতিপাড়াস্থ দি এইডেড হাইস্কুল এবং নয়াসড়কস্থ কিশোরী মোহন বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে ৩টি কেন্দ্র।
১৭নং ওয়ার্ডে ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৬টি। এই কেন্দ্রগুলো হল কাজীটুলাস্থ কাজী জালাল উদ্দিন বালক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কাজী জালাল উদ্দিন বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, লোহারপাড়াস্থ শাহীন স্কুল এন্ড কলেজ, কাজীটুলাস্থ দি রয়েল এমসি একাডেমি এবং আম্বরখানা দরগা গেইট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
১৮নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৫টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল মিরাবাজারস্থ মডেল হাইস্কুল, ঝর্ণারপাড়স্থ কাজী জালাল উদ্দিন বহুমুখী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং রায়নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র।
১৯নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৪টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, শাহী ঈদগাস্থ শাহ মীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, বখতিয়ার বিবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং দর্জিপাড়াস্থ সার্ক ইন্টারন্যাশনাল কলেজ।
২০নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৫টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল,এমসি কলেজ, দেবপাড়াস্থ নবীনচন্দ্র সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং সাদিপুরস্থ সৈয়দ হাতিম আলী উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র।
২১ নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৫টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল সাদিপুরস্থ সৈয়দ হাতিম আলী প্রাথমিক বিদ্যালয়, কালাসীলস্থ চান্দুশাহ জামেয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা, সোনারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং শিবগঞ্জস্থ স্কলার্সহোম প্রিপারেটরি স্কুল।
২২নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৫ টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, শাহজালাল উপশহর উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র উপশহরস্থ শাহজালাল আদর্শ বিদ্যালয়, শাহজালাল উপশহর একাডেমি এবং উপশহরস্থ বাংলাদেশ ব্যাংক স্কুল।
২৩নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৩টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, মাছিমপুরস্থ আব্দুল হামিদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং মেন্দিবাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
২৪নং ওয়ার্ডের রয়েছে ৪টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, উমরশাহ তেররতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, টুলটিকরস্থ গাজী বুরহানউদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কুশিঘাটস্থ শাহ গাজী সৈয়দ বুরহানউদ্দিন (রহ) মাদরাসা।
২৫নং ওয়ার্ডে ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৬টি ভোটকেন্দ্র। কেন্দ্রগুলো হল, কায়েস্থরাইল উচ্চবিদ্যালয়, কায়েস্থরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোমিনখলা মৌরবিবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, খোজারখলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র এবং টেকনিক্যাল রোডস্থ সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ।
২৬নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৬টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল ভার্থখলা নছিবা খাতুন বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, কদমতলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, ঝালোপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং রেলওয়ে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
২৭নং ওয়ার্ডে রয়েছে ৫টি ভোটকেন্দ্র। এগুলো হল, পাঠানপাড়ায় জহির তাহির মেমোরিয়াল উচ্চবিদ্যালয়ে দুটি কেন্দ্র, গোটাটিকর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গোটাটিকর উচ্চ বিদ্যালয় এবং হবিনন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
৮০ কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ: সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে ১৩৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮০টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)। গতকাল বুধবার বিকেলে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ।
তিনি বলেন, আপনারা যেটাকে ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করেন, সেটাকে আমরা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করি। তবে ২৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে কোন ওয়ার্ডে কতটি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ তা প্রকাশ করেননি তিনি। অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ বলেন, সিলেট সিটি নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ করতে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে এসএমপির।
আগামী ৩০ জুলাই সিলেট সিটি করপোরেশন মাধ্যমে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করবেন। এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে ৬ জন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬২ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১২৭ জন ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এরইমধ্যে কাউন্সিলর পদে ২০ নং ওয়ার্ডের এক প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন।