ধানের শীষের সমর্থনে নগরীর বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ অব্যাহত ॥ ভোটের মাধ্যমে উন্নয়ন বাধাগ্রস্তকারীদেরকে সমুচিত জবাব দিতে হবে

প্রচন্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে ধানের শীষের সমর্থনে নগরীর বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ অব্যাহত রয়েছে। এসব গণসংযোগে বিএনপির মহানগর, জেলার নেতৃবৃন্দ ছাড়াও অংশ নিচ্ছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। এছাড়া ২০ দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দও জোরালোভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন ধানের শীষের পক্ষে। গতকাল সোমবার (২৩ জুলাই) সকালে নগরীর সোবহানীঘাটস্থ কাঁচা বাজারে অংশ নেন আরিফুল হক চৌধুরী। এসব গণসংযোগে বিএনপি, ২০ দলীয় জোটের নেতৃবন্দ ছাড়াও সাধারণ মুদি ব্যবসায়ীরা স্বত:স্ফূর্তভাবে অংশ নেন। এছাড়া দুপুরে নগরীর জালালাবাদ ও পশ্চিম পীরমহল্লা এবং বাদ জোহর নগরীর সুবিদবাজারের বনকলাপাড়া, কলাপাড়া এবং লন্ডনী রোডে আরিফুল হক চৌধুরী গণসংযোগ করেন। এ সময় গণসংযোগে অংশ নেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আনাম চৌধুরী, কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবন।
গণসংযোগকালে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেন, আরিফুল হক চৌধুরী মানুষের জন্য চিন্তা করেন। নগরীর উন্নয়নের জন্য তিনি অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা করেছেন। আড়াই বছরের বেশি সময় জেল খেটেছেন। মূলত একটি সুন্দর নগরীর গড়ে তুলার মিশন নিয়ে কাজ করেছেন বলেই তিনি সরকারের কাছে অপরাধী হয়েছেন। যারা তাঁেক বন্দী করে উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করেছিল, আপনাদের ভোটের ম্যাধমেই তার সমুচিত জবাব দিতে হবে। ষড়যন্ত্রকারীদেরকে বুঝিয়ে দিতে হবে, সিলেটের মানুষ অন্যায়কে কখনো ছাড় দেয় না। গণসংযোগকালে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সচেতন থাকার জন্য আপামর জনতার প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
গণসংযোগকালে আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, আমার প্রতি আপামর জনতার ভালোবাসা দেখে আমি অভিভূত। এই ভালোবাসা আমার দায়বদ্ধতাকে বাড়িয়ে দেয়। এই দায়বদ্ধতা থেকে মানুষের কল্যাণে তথা নগরীর উন্নয়নে শ্রেষ্ঠ কাজটি উপহার দিতে চেষ্টা করি। আমাকে আবারও ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে আপনাদের সেবার মাধ্যমে নগরীর যাবতীয় সমস্যা-সমাধান করে একটি সুন্দর ও আধুনিক নগরী উপহার দেবো। গণসংযোগকালে তিনি ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতি হুঁশিয়ার করে বলেন, আপনারা যারা অতি উৎসাহী হয়ে নির্বাচনের পরিবেশকে নষ্ট করার পাঁয়তারা করছেন তারা নিজেরা খাল কেটে কুমির আনছেন। এই সিলেটে কেউ অন্যায় করে পার পায় না। তাকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হয়।
এছাড়া গণসংযোগে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসেইন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, ৭নং ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি লল্লিক আহমদ চৌধুরী, সিনিয়র সহ সভাপতি, মানিক মিয়া, সহ সভাপতি বদরুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক এম. মখলিস খান, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী নঈমুল ইসলাম, বিএনপি নেতা জামাল আহমদ খান। এছাড়া গণসংযোগকালে বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদলসহ অঙ্গসংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী ছাড়া বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেন। বিজ্ঞপ্তি