রিকাবীবাজার, কাজলশাহ এবং কানিশাইলে গণসংযোগ ॥ নগরীর কল্যাণ চিন্তা যার লক্ষ্য, তাঁর বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না

সিলেট নগরীর উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে অসামান্য কাজ করেছেন আরিফুল হক চৌধুরী। অনেক বাধা-বিপত্তি এবং প্রতিবন্ধকতাকে দূরে ঠেলে আরিফুল হক চৌধুরী প্রমাণ করেছেন, আন্তরিকতা ও স্ব-ইচ্ছা থাকলে নগরীর উন্নয়নে ভূমিকা রাখা যায়। মানুষের কল্যাণ চিন্তা যার জীবনের লক্ষ্য, তাকে কেউ পরাজিত করতে পারবে না। আরিফুল হক চৌধুরী তাঁর কাজের মাধ্যমে মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় স্থান করে নিয়েছেন।
ধানের শীষের সমর্থনে রবিবার (২২ জুলাই) বাদ আসর রিকাবীবাজার, কাজলশাহ এবং বাদ মাগরিব কানিশাইলের প্রাঙ্গনে আয়োজিত পথসভা ও গণসংযোগকালে সাধারণ মানুষের বক্তব্য থেকে উঠে এমন কথাগুলো। দল-মতের ঊর্ধ্বে উঠে যিনি মানুষের তথা নগরীর উন্নয়নে অমানসিক পরিশ্রম করতে পারেন তিনিই নগরীর সত্যিকার রক্ষক বলে পথসভা ও গণসংযোগকালে সাধারণ জনগণ মন্তব্য করেন।
এছাড়া মানুষের সুখে-দু:খে যিনি পাশে দাঁড়ান, জনগণের কাছে তাঁকে ভোট চাইতে হবে না বলে মন্তব্য করে সাধারণ মানুষের আবেগের ভাষায় উঠে আসে, তিনি মানুষের নেতা, নগরীর রূপকার। সকলের ভালোবাসা তাঁকে বিজয় মঞ্চে দাঁড় করাবে।
আরিফুল হক চৌধুরী পথসভায় আক্ষেপ করে বলেন, সরকার আমাকে মিথ্যা-মামলায় আড়াই বছরের বেশি সময় বন্দি করে রেখেছে। নগরীর উন্নয়ন নিয়ে আমার স্বপ্ন পূরণকে বাধাগ্রস্ত করেছে। তবুও আমার দায়িত্বের দুই্ বছরে নগরীর উন্নয়নে এমনভাবে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি, যাতে মানুষের ভালোবাসা আমি অর্জন করতে পারি। আপনাদের এই ভালোবাসা, আমাকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়েছে নগরীর উন্নয়নে আমাকে আরো অনেক কিছু করতে হবে। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে আপনাদের স্বপ্নকে পূরণ করতে নিজেকে আত্মনিয়োগ করবো। সিলেট নগরীকে একটি মেগাসিটি হিসেবে তৈরী না করার আগ পর্যন্ত আমি থামবো না। আরিফুল হক চৌধুরী সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সচেতন থাকার জন্য জনগণর প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
কানিশাইল উঁচাবাড়ী প্রাঙ্গণে মহানগর বিএনপির উপদেষ্টা আলহাজ্ব আলাউদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে ও মহানগর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন বাচ্চুর পরিচালনায় নির্বাচনী পথসভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, সিলেট মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি ও সাবেক প্যানেল মেয়র আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকি, সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতাহ সিদ্দিকী, জেলা বিএনপির উপদেষ্টা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মাজহারুল ইসলাম ডালিম।
পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন জেলা বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শাকিল মোর্শেদ, ১১ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি হাজী আমিনুর রহমান খোকন,সাংগঠনিক সম্পাদক তায়েফ আহমদ, শেখ মঈন উদ্দিন, সাহাব উদ্দিন, এম ও হান্নান, আব্দুল হাকিম, নিয়ামত আলী, সেলিম আহমদ, আব্দুল হান্নান, সাব্বির আহমদ, হাজী সামছুদ্দাহা, আব্দুর রব প্রমুখ। এছাড়া পথসভায় বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, অঙ্গসংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা ছাড়াও সাধারণ জনগণ গণসংযোগে অংশ নেন। আরিফুল হক চৌধুরী চৌকিদেকিতে উঠানবৈঠকে অংশগ্রহণ করে দক্ষিণ সুরমার খোজারখলায় আয়োজিত পথসভায় যোগ দেন। মারকাজ পয়েন্টে আয়োজিত পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবন, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভানেত্রী মির্জা আফরোজা আব্বাস, সাবেক সাংসদ ও বিএনপির কেন্দ্রীয় স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ শাম্মী আখতার শিপা, সাবেক সাংসদ রাশেদা বেগম হীরা, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সাবেক সাংসদ ইয়াসমিন আরা হক, সাবেক সাংসদ ও নির্বাহী সদস্য নেওয়াজ হালিমা আরলী, মহানগর বিএনপির সদস্য সামিয়া বেগম চৌধুরী। এছাড়া পথসভায় স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি