হত্যা মামলায় ৩ সহোদরের যাবজ্জীবন

স্টাফ রিপোর্টার :
বিশ্বনাথে রাশিদ আলী হত্যা মামলায় ৩ সহোদরের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি তাদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেটের অতিরিক্ত দায়রা জজ ৫ম আদালতের বিচারক সাবেরা সুলতানা খানম এ রায় ঘোষণা করেন।
যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হচ্ছে- বিশ্বনাথ উপজেলার হরিপুর গ্রামের মৃত কটন আলীর পুত্র আকদ্দস আলী, তার ভাই মকদ্দস আলী ও আনছার আলী। রায় ঘোষনার সময় সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলো।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ১৯৯৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর বিশ্বনাথের হরিপুর গ্রামে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে আসামীরা রাশিদ আলীর উপর হামলা চালিয়ে তাকে গুরুতর আহত করে। পরে আহতকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে রাশিদ আলী ৩৭দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ২০০০ সালের ২৬ জানুয়ারী তিনি মারা যান। এ ঘটনায় নিহত রাশিদ আলী পুত্র আহমদ রেজা ইদ্রিস বাদি হয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে বিশ্বনাথ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার নং- ১০ (২৬-০১-২০০০)। দীর্ঘ তদন্ত শেষে বিশ্বনাথ থানার এসআই আব্দুর রাজ্জাক একই বছরের ১৩ জুন ৩ আসামীকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন এবং ২০০৪ সালের ১৭ জুলাই থেকে আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে চার্জগঠন (অভিযোগগঠন) করে এ মামলার বিচার কায্য শুরু করেন। দীর্ঘ শুনানী ও ২৭ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আসামী আকদ্দস আলী, তার ভাই মকদ্দস আলী ও আনছার আলীকে ৩০২/৩৪ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে তাদেরকে উল্লেখিত দন্ডাদেশ প্রদান করা হয়।
রাষ্ট্রপক্ষে এপিপি এডভোকেট জসিম উদ্দিন ও আসামীপক্ষে এডভোকেট একেএম শিবলী মামলাটি পরিচালনা করেন।