বন্ধ হয়ে গেল ইয়াহু ম্যাসেঞ্জার

কাজিরবাজার ডেস্ক :
গত ১৭ জুলাই বন্ধ হয়ে গেল ইয়াহু ম্যাসেঞ্জার। এক সময়ের জনপ্রিয় এ চ্যাটিং সেবার সঙ্গে অনেকের স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। সেইসব স্মৃতিকথা টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে জানাচ্ছেন অনেকেই।
ইয়াহু কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা ১৭ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে ইয়াহু মেসেঞ্জার বন্ধ করে দিয়েছে। ইয়াহু মেসেঞ্জার ব্যবহারের স্মৃতি অনেকেই তুলে ধরছেন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোয়।
১৯৯৮ সালে যাত্রা শুরু করেছিল ইয়াহুর ম্যাসেঞ্জার সেবা। সে সময় কিশোর-তরুণদের কাছে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল তা। গ্রুপ বা দল আকারের চ্যাট রুমে আলাপ করার বিষয়টি অনেকেই উপভোগ করেছেন। তবে এখনকার যুগের হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাটের সঙ্গে জনপ্রিয়তায় পেরে ওঠেনি ইয়াহু মেসেঞ্জার।
ইয়াহু ম্যাসেঞ্জারের ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে ‘দারুণ এক যাত্রা ছিল ইয়াহু ম্যাসেঞ্জারের। ২০ বছরের যাত্রায় এ সেবা কোটি কোটি মানুষ উপভোগ করেছেন। লাখো মানুষের জীবন বদলে দিয়েছিল এটি। লাখো মানুষ চিঠি পাঠিয়েছেন, ছবিও পাঠিয়েছেন। আরেক বিবৃতিতে ইয়াহু কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা আরেকটি মেসেজিং অ্যাপ তৈরি করছে, যার নাম স্কুইরেল। এটি ইয়াহু মেসেঞ্জারের বদলি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।
এদিকে ইয়াহু আরও জানায়, যাদের ইয়াহুতে চ্যাটের বিভিন্ন হিস্টরি রয়েছে, তা আগামী ছয় মাস পর্যন্ত ডাউনলোড করার সুযোগ থাকবে। এরপর আর তা ওয়েবে পাওয়া যাবে না।