সোবহানীঘাট মাদ্রাসায় জুম্মার নামাজ আদায় শেষে কামরান ॥ আজীবন সিলেটবাসীর সেবায় নিয়োজিত থাকবো

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আওয়ামী লীগ মনোনিত মেয়রপ্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন- সিলেট সিটি করপোরেশনকে একটি আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলতে সিলেটের মানুষ আজ নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ। যে দিকেই যাচ্ছি মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছি। জনগনের ভালোবাসার প্রতিদান দিতে আমি প্রস্তুত রয়েছি। তিনি বলেন- আধ্যাত্মিক শহর সিলেটের মানুষের সঙ্গে আমার আত্মার বন্ধন রয়েছে। দীর্ঘ দিন আমি নগরের মানুষের সেবক হিসেবে কাজ করেছি। একদিনের জন্য কখনো আমি আমার প্রাণের সিলেটবাসীর সঙ্গে সর্ম্পক বিচ্ছিন্ন করেনি। যতদিন আল্লাহ রাব্বুল আ-লামীন আমাকে জীবিত রাখবেন- আমি আজীবন সিলেটের মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবো।
তিনি বলেন- এই সিলেট সামাজিক, ধর্মীয় সম্প্রতির শহর। শান্তিপ্রিয় সিলেটের মানুষের স্বপ্ন একটি উন্নত নগরের বাসিন্দা হবেন তারা। আমি অতীতে তাদের স্বপ্নের সারথী হয়ে কাজ করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেষ হাসিনা সিলেটের উন্নয়নে আন্তরিক। সিলেটের উন্নয়ন সর্ম্পকে তাকে কিছুই বলতে হয় না। এবার প্রধানমন্ত্রী সিলেট উন্নত শহরে পরিনত করতে স্বাধীনতার প্রতীক নৌকা আমার হাতে তুলে দিয়েছেন। ৩০ জুলাই নির্বাচনে সিলেটের মানুষ নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ থেকে ভোট দেবে ইনশাআল্লাহ।
বদরউদ্দিন আহমদ কামরান গতকাল শুক্রবার সকালে সিলেটের সুবহানীঘাটে উপমহাদেশের প্রখ্যাত আলেম ও ছাহেব ক্বিবলা আল্লামা হযরত আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলীর স্মৃতি বিজরিত হযরত শাহজালাল দারুছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদ্রাসার জুম্মার নামাজের পর মুসল্লীদের সঙ্গে গনসংযোগকালে এ কথা বলেন। এ সময় মেয়র প্রার্থী কামরানকে কাছে পেয়ে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা জড়িয়ে ধরেন এবং কোলাকুলি করেন। তারা এবার নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ রয়েছেন বলে কামরানকে আশ্বস্ত করে বলেন- সোবহানীঘাট সহ আশপাশের এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাটের উন্নয়নে তার অবদান অপরিসীম। মেয়র থাকাকালে তিনি সুবহানীঘাটের অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছে। এতে করে সুবহানীঘাটের মানুষ আজ তার কাছে কৃতজ্ঞ। আগামী নির্বাচনে তারা তারা নৌকায় ভোট দিয়ে সিলেটকে উন্নত জনপদ গড়ার কর্মকান্ডে শরীক হবেন বলে জানান।
জুম্মার নামাজের আগে মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান সুবহানীঘাটের মাদ্রাসা রোডের ব্যবসায়ীর সঙ্গে গণ-সংযোগ করেন। পরে তিনি মাদ্রাসা মসজিদে হাজারো মুসল্লীর সঙ্গে পবিত্র জুম্মার নামাজ আদায় করেন। পরে তিনি মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে মুসল্লীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কামরানের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির আহবায়ক শফিকুর রহমান চৌধুরী, ছাহেব ক্বিলার সুযোগ্য উত্তরসূরী ও আল ইসলাহ কেন্দ্রীয় সভাপতি হযরত মাওলানা হুসাম উদ্দিন চৌধুরী, আল ইসলাহর অর্থ সম্পাদক মাওয়ানা আবু সালেক, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আজির উদ্দিন পলাশ, মহানগর আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আজাদুর রহমান, আল ইসলাহ পাঠাগার সম্পাদক মাওলানা নজির আহমদ হেলাল, তালামীযের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক আক্তার হোসেন জাহেদ, মহানগর আল ইসলাহর সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান, মাওলানা রফিকুল হোসেন খান প্রমুখ। এছাড়া এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও কামরানের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির আহবায়ক শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আজাদুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা হাজী মতিন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা এডভোকেট ফখরুল ইসলাম, বদরুল হোসেন খান কামরান, ছাত্রলীগ নেতা শাওন আহমদ, আবুল কালাম আব্দুল হাই প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি