মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে মর্যাদার আসনে বসিয়েছে – ইমরান আহমদ এমপি

গোয়াইনঘাট থেকে সংবাদদাতা :
বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে আমেরিকা অবস্থান করে বিশেষ ভূমিকা রাখায় ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদ এমপিকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।
শনিবার গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠন সমূহের উদ্যোগে আয়োজিত সংবর্ধনা, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ ইমরান আহমদ বলেন, মহাকাশে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ বাংলাদেশেকে বিশ্ব দরবারে মর্যাদার আসনে বসিয়েছে। আর এর সম্পূর্ণ কৃতিত্ব জননেত্রী প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার। শেখ হাসিনার দূরদর্শী চিন্তাধারা ও নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের মর্যাদা লাভ করেছে। তিনি বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে বেতবুনিয়ায় কৃত্রিম ভূ উপগ্রহ কেন্দ্র স্থাপন করে এ দেশের টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থায় আধুনিকায়নের যে বীজ বপণ করেছিলেন তাঁর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে শেখ হাসিনা মহাকাশে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছেন।
গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া হেলাল’র পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পাল, পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফুর রহমান লেবু, গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হক, গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আঃ জলিল, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা সামছুল আলম, সুভাস চন্দ্র পাল ছানা, আসলম আলী, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ফারুক আহমদ, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মুজিবুর রহমান, সুবাস দাশ, যুবলীগ নেতা আফাজ উদ্দিন প্রমুখ।
এর আগে গোয়াইনঘাটের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, দরিদ্রদের মাঝে চাল বিতরণ, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান ও চা-শ্রমিকদের মাঝে চেক বিতরণসহ পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ বলেন, বঙ্গবন্ধু তনয়া গনতন্ত্রের মানষ কন্যা শেখ হাসিনার সরকার চা-শ্রমিকদের জীবন মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। এ সরকারই চা-শ্রমিকদের মাতৃত্বকালীন ছুটি ৪মাসে উন্নীত করেছে। একজন চা-শ্রমিক তাঁর জীবন চাহিদা পূরণের জন্য তার দৈনিক মজুরী বৃদ্ধি করা হযেছে। এছাড়া সমাজে পিছিয়ে পড়া প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের মাধ্যেমে সরকার প্রতিবন্ধীদেরও সমাজে প্রথম সারীতে স্থান দিয়েছে। তিনি আরও বলেন শিক্ষা, যোগাযোগ, স্বাস্থ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে সরকার সফলতার স্বাক্ষর রেখে আসছে। তিনি উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের ফিরিস্তি তুলে ধরে বলেন, সাড়ে ৭শত কোটি টাকা ব্যয়ে আম্বরখানা-ভোলাগঞ্জ মহাসড়কের কাজ চলমান রয়েছে। এ ছাড়াও সিলেট তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তাপুর-জাফলং পর্যন্ত সংস্কারের জন্য ১শ ৯০ কোটি টাকার বাজেট একনেকে অনুমোদন হয়েছে। অল্প দিনের ভিতরে এ সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু হবে। তিনি জৈন্তাপুর থেকে জাফলং সেতু হয়ে হাদার পারের আনফরের ভাঙ্গা দিয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা সদরে যাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন বলেও জানান। এ সময় তিনি কিছু দিনের মধ্যে আনফরের ভাংঙ্গায় সেতু নির্মাণের ঘোষণাও দেন।