ওসমানী হাসপাতালের সাবেক উপ-পরিচালক সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে পৌনে ২ কোটি টাকা আত্মসাতে দুদকের পৃথক মামলা

স্টাফ রিপোর্টার :
সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিভিন্ন কাজের ভাউচার জালিয়াতি করে ১ কোটি ৮৭ লক্ষ ৭৪ হাজার ২শ’ ৩৬ টাকা আত্মসাৎ করার দায়ে হাসপাতালের সাবেক উপ-পরিচালক ও ঠিকাদারসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সিলেট। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সিলেট উপ-পরিচালক মাহবুবুল আলম বাদি হয়ে কোতোয়ালী থানায় ৪ জনকে আসামী করে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেন। যার নং- ৪৯ ও ৫০।
মামলায় এজাহারনামীয় আসামীরা হচ্ছেন- ওসমানী হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা: আব্দুছ ছালাম (৬০), ঠিকাদার জাকির হোসেন (৩৯), ওসমানী হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষক মো: আব্দুল কুদ্দুছ আটিয়া (৬১) ও রিকাবীবাজারের মেসার্স তাহের এন্টারপ্রাইজের মো: আবু তাহের (৩৮)। এর মধ্যে ৪৯ নং মামলার আসামী হচ্ছেন-মো: আবু তাহের, মো: আব্দুল কুদ্দুছ আটিয়া ও ডা: আব্দুছ ছালাম এবং ৫০নং মামলার আসামীরা হচ্ছেন- জাকির হোসেন, মো: আব্দুল কুদ্দুছ আটিয়া ও ডা: আব্দুছ ছালাম।
পৃথক মামলার এজাহারে জানা গেছে, উপরোক্ত ব্যক্তিদ্বয় পরস্পর যোগসাজসে ২০১৫/১৬ অর্থ বছরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কথিত এমএসআর সামগ্রী সরবরাহের নামে অসৎ উদ্দেশ্যে অপরাধমূলক বিশ্বাসভঙ্গ, প্রতারণা, জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে পৃথক ভাবে ২৪টি ভুয়া বিলের মাধ্যমে সরকারী ১ কোটি ৫৭ লক্ষ ৯৬ হাজার ৬৪ টাকা এবং ৫টি ভুয়া বিলের মাধ্যমে ২৯ লক্ষ ৭৮ হাজার ১শ’ ৭২ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন আসামীরা।
এদিকে, মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গৌছুল হোসেন জানান, ওসমানী হাসপাতালের সাবেক উপ-পরিচালকসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে দুদক দু’টি মামলা দায়ের করেছে। তিনি বলেন, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, সাবেক উপ-পরিচালক ডা: আব্দুস ছালাম বছর খানেক আগে অবসরে যাওয়ায় হাসপাতালের বর্তমান দায়িত্বশীলরা এ মামলার বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি।