বিশ্বকাপ যাদের মিস করবে

ক্রীড়াঙ্গন রিপোর্ট :
দুয়ারে কড়া নাড়ছে বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বৃহৎ আসর বিশ্বকাপ। পুরো পৃথিবী প্রতিক্ষার প্রহর গুণছে প্রিয় দল আর প্রিয় তারকাদের দেখার জন্য। এই বিশাল ক্রীড়াযজ্ঞে মাঠ মাতাবেন বিশ্বের বড় বড় তারকারা।
তবে এমন কয়েকজন তারকা আছেন যাদের অনুপস্থিতি পোড়াবে অনেককে। এমনকি তাদের মিস করবে খোদ বিশ্বকাপ।
যে কোনো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট থেকে কিছু খেলোয়াড় নানান কারণে ছিটকে যান, কেউবা ইনজুরির কারণে, কেউবা কোচের কুনজরে পড়ে। ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপও তার ব্যতিক্রম নয়। এবারও ফুটবল বিশ্বের বেশ বড় বড় নাম থাকছে না মূল আসরের তালিকায়।
সব দলই বিভিন্ন ফরম্যাটের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে এরই মধ্যে। এখন সবাই জানে কারা কারা থাকছেন ব্রাজিল, পর্তুগাল, আর্জেন্টিনা, জার্মানি বা ইংল্যান্ডের স্কোয়াডে। তবে অনেকেই জানেন না কারা কারা থাকছেন না।
যারা বাদ পড়েছেন তাদের মধ্যে বড় কিছু নাম আছে এদের নিয়ে সাজানো যেতে পারে বেশ কয়েকটি একাদশ (যদি তাদের এক দলে রাখা হয়)। এমনকি এই দল নিয়ে বিশ্বকাপ জয়ের বাজি ধরাও সম্ভব।
অনুপস্থিতদের দল-১: ফরমেশন : ৪-৪-২
অনেকেই ইতোমধ্যেই নিশ্চয় জেনে গেছেন যে, ২০১৮ সালের বিশ্বকাপে থাকা হচ্ছে না জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ ও করিম বেনজেমার। পুরো বাছাইপর্বেই যারা দলের বাইরে ছিলেন তাদের না থাকাটা তেমন আশ্চর্যজনক নয়। সাবেক সুইডিশ তারকা ইব্রাহিমোভিচ তো আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরই নিয়ে নিয়েছেন।
যদিও দেশের প্রয়োজনে অবসর ভেঙে ফেরার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন ইব্রা, কিন্তু জাতীয় দলের কোচের তাতে মন গলেনি। এদিকে একটি প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে রাশিয়ায় বিশ্বকাপের সময় উপস্থিত থাকবেন ইব্রা, তবে খেলার স্বপ্ন আর পূরণ হবার নয়।
একবার ভাবুন তো, বাদ পড়া ইব্রা যদি একাদশে ফরোয়ার্ড হিসেবে থাকতেন? সেই বাইসাইকেল কিক বা কিক শট দেখার ইচ্ছা এবার সংবরণ করতে হচ্ছে ভক্তদের।
করিম বেনজেমার বাদ পড়াটাও অনুমিত ছিল। হয়েছেও তাই। কোচ দিদিয়ের দেশম্প রিয়াল স্ট্রাইকারকে স্কোয়াডে রাখার প্রয়োজন বোধ করেননি। তবে অনুপস্থিত দলের একাদশে তিনিই মূল স্ট্রাইকার।
অনুপস্থিত খেলোয়াড়দের একাদশে মিডফিল্ডার হিসেবে রাখা যেতে পারে ফ্রান্সের বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়া ফরাসি মিডফিল্ডার জিওফ্রে কন্ডোকবিয়া, আদ্রিয়ান রাবিওট, আর্জেন্টাইন হাভিয়ের পাস্তোরে ও জার্মান তারকা মারিও গোদজে।
রক্ষণে ব্রাজিল দল থেকে বাদ পড়া অ্যালেক্স সান্দ্রো, ডেভিড লুইস, আর্জেন্টিনার ইজেকুয়েল গ্যারি, আর ইনজুরির কারণে ব্রাজিল স্কোয়াড থেকে ছিটকে পড়া দানি আলভেজ।
গোলরক্ষকের ভূমিকায় ইংল্যান্ডের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়া দুর্ভাগা জো হার্ট সেরা অপশন হতে পারেন।
অনুপস্থিতদের দল-২: ফরমেশন : ৪-২-৩-১
ব্রাজিল স্কোয়াড থেকে বাদ পড়া নেতো এই দলের গোলরক্ষক।
রক্ষণ সামলানোর দায়িত্বে থাকবেন বার্সার ফরাসি তারকা লুকাস ডিগনে, সেভিয়ার ফরাসি তারকা ক্লেমেন্ট লেংলেট, বার্সার পর্তুগিজ তারকা নেলসন সেমেদো ও জার্মান তারকা শোকদ্রান মুস্তাফি। ডিভেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবে থাকবেন ফরাসি তারকা দিমিত্রি পায়েত।
এক সময় ফ্রান্স দলের নিয়মিত সদস্য পায়েত ইনজুরির কারণে ফর্ম হারিয়ে স্কোয়াড থেকে ছিটকে পড়েছেন। পায়েতের সাথে ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডে থাকবেন আর্সেনালের ইংলিশ তারকা জ্যাক উইলশেয়ার। ভাল ফর্ম আর ফিটনেস থাকা সত্ত্বেও তিনি ইংলিশ স্কোয়াডে জায়গা পাননি।
অ্যাটাকিং মিডফিল্ডে থাকবেন ইংল্যান্ডের অ্যালেক্স অক্সলেড-চেম্বারলেইন। আর্সেনাল থেকে চলতি মৌসুমেই ট্রান্সফারে লিভারপুলে এসে অসাধারণ খেলতে থাকা এই মিডফিল্ডারের বিশ্বকাপ স্বপ্ন ভেঙে গেছে ইনজুরির কারণে।
চেম্বারলেইনের সাথে আরও থাকবেন টটেনহ্যামের আর্জেন্টাইন তারকা এরিক লামেলা। ক্লাবের হয়ে খুব কম উপস্থিতির কারণে সাম্পাওলির স্কোয়াডে জায়গা হয়নি তার। তার সঙ্গী হবেন টটেনহ্যামেই ব্রাজিলিয়ান তারকা লুকাস মোউরা।
একাদশের একমাত্র স্ট্রাইকার হবেন আর্সেনালের ফরাসি তারকা আলেকজান্ডার লাকাজেট্টে। প্রথম মৌসুমে মাত্র ১৪ গোল করে ওয়েঙ্গারের
প্রত্যাশা ভঙ্গ করার পাশাপাশি জাতীয় দলের কোচ দিদিয়ের দেশম্পের কাছেও গুরুত্ব হারিয়েছেন তিনি।
অনুপস্থিতদের নিয়ে আরও একটি দল গঠন সম্ভব। যেখানে থাকবেন মার্শাল, কোমান, আন্দ্রে গোমেজ, এমেরি চান, পাওলো গুরেইরোদের মতো তারকা।
তবে এসবই কল্পনাপ্রসূত। তাদের মধ্যে কাউকেই এবারের বিশ্বকাপে দেখা যাবে না, এটাই সত্য। আবার তাদেরকে মিস করবে রাশিয়া বিশ্বকাপ, এটাও সত্য।