কক্ষ পথে পৌঁছেছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ফিরে এসেছে ফ্যালকন-৯ রকেট

কাজিরবাজার ডেস্ক :
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কাজ সফলভাবে সম্পূর্ণ হওয়ার পরই নির্ধারিত ৩৩ মিনিটে কক্ষপথে পৌঁছে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। স্যাটেলাইটকে বহন করা ফ্যালকন-৯ রকেটটি এর কিছুক্ষণ পর ভূ-পৃষ্টে ফিরে আসে। এর আগে শুক্রবার দিবাগত রাত ২টা ১৪ মিনিটে স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণ করা হয়।
স্পেসএক্সের ফ্যালকন-৯ রকেটের নতুন সংস্করণ ব্লক ফাইভ ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারের লঞ্চ প্যাড থেকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটকে সঙ্গে নিয়ে রওনা হয় জিওস্টেশনারি ট্রান্সফার অরবিটের দিকে। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর রাত ২টা ৪৭ মিনিটে এ স্যাটেলাইট বা কৃত্রিম উপগ্রহটি নির্ধারিত কক্ষপথে পৌঁছায়। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসেবে নিজস্ব স্যাটেলাইটের মালিক হলো।
মার্কিন বেসরকারি স্পেসএক্স প্রতিষ্ঠানের নির্মিত ‘ফ্যালকন-৯’ রকেটটি পুনরায় ব্যবহারযোগ্য। এটি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কাজ সফল ভাবে সম্পূর্ণ করে, ভূ-পৃষ্টে ফিরে এসেছে। ভবিষ্যতে অন্য কোনো স্যাটেলাইট পাঠাতে এটি ব্যবহার করা যাবে।
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সম্পূর্ণ চালু হওয়ার পর এর নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের গাজীপুর নবনির্মিত গ্রাউন্ড স্টেশনে হস্তান্তর করা হবে। স্যাটেলাইটটি পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রায় ২০ দিন সময় লাগবে। এর পরেই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রাইমারি গ্রাউন্ড স্টেশন এর নিয়ন্ত্রণ নেবে। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের তেলীপাড়ায় টেলিযোগাযোগ স্টাফ কলেজ সংলগ্ন এলাকায় স্টেশনটি স্থাপন করা হয়েছে।
রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় এ ধরনের আরেকটি গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপন করা হয়েছে। সেটি হচ্ছে গাজীপুরে স্থাপন করা গ্রাউন্ড স্টেশনের বিকল্প। মূল নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র হবে গাজীপুরের গ্রাউন্ড স্টেশন থেকেই। শিগগিরই প্রাইমারি গ্রাউন্ড স্টেশনটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে।
প্রায় ৩৬ হাজার কিলোমিটার দূরে উড়ে যাবে এই স্যাটেলাইট। ৩৫ হাজার ৭০০ কিলোমিটার যাওয়ার পর রকেটের স্টেজ-২ খুলে যাবে। স্যাটেলাইট উন্মুক্ত হওয়ার পরপর এর নিয়ন্ত্রণ যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি এবং কোরিয়ার তিনটি গ্রাউন্ড স্টেশনে চলে যাবে।