Tag:

পার্কিং কেন্দ্রে সোবহানীঘাটে পরিবহন শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, ট্রাফিক কনস্টেবল ক্লোজ

স্টাফ রিপোর্টার :
নগরীর সোবহানীঘাট পয়েন্টে গাড়ি পার্কিং করাকে কেন্দ্র করে পিকআপ শ্রমিক-পুলিশের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।
বুধবার সন্ধ্যায় ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরিবহন শ্রমিকরা সড়ক বন্ধ করে দিলে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট।
১ ঘন্টা সড়ক অবরোধ থাকার পর ট্রাফিক পুলিশ শাহাদাতকে ক্লোজ করা হলে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নিলে পুনরায় যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় নগরীর সোবহানীঘাট পয়েন্টে আব্দুল্লা ট্রান্সপোর্টের সামনে একটি কার পার্কিং করে রাখা হয়। তখন পয়েন্টে দায়িত্ব পালন করছিলেন ট্রাফিক পুলিশ শাহাদত। যানজট লাগতে পাড়ে এমন ভেবে তিনি কার পার্কিং এ বাধা দেন। তখন পিকআপ কাভার্ডভ্যান দক্ষিণ সুরমা আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি কাউসার আহমদ ও শাহাদতের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দু’পক্ষ মারামারিতে জড়িয়ে পরেন। খবর পেয়ে ট্রাক, পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিকরা জড়ো হয়ে গাড়ি রেখে ব্যারিকেট দিয়ে চারটি সড়ক বন্ধ করে দেন।
এ সময় ইবনে সিনার সামন থেকে বন্দরমুখী সড়ক, শাহী ঈদগাহ সড়ক, যতরপুর সড়ক ও শাহজালাল সেতু সড়কে তখন শত শত যানজট আটকা পড়ে। দীর্ঘ ১ঘন্টা যানজট থাকার পর পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। সোবহানীঘাট পুলিশ ফাঁড়িতে বসে উভয়পক্ষের কথা শুনে ট্রাফিক কনস্টেবল শাহাদাত কে লাইনে ক্লোজ করার সিদ্ধান্ত নেন।
সেখানে তখন উপস্থিত ছিলেন ট্রাফিক ডিসি তোফায়েল আহমদ, সিলেট জেলা ট্রাক মালিকগ্রুপের সাধারণ সম্পাদক জাবেদ সিরাজ, জেলা ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি দিলু মিয়া, শ্রমিক সংগঠনের অন্যান্য শাখার নেতাকর্মী সহ অন্যান্যরা। তার পর ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান এর ড্রাইভার শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেন।
এব্যপারে জানতে চাইলে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব ঘটনার সততা নিশ্চিত করেন।