আমি আজ নরকবাসী

তা/রে/ক /লি/ম/ন

ওপারের ডাক এসেছে
ও ভাই তোরা কেউ কি যাবি আমার সাথে আয়,
আমি কি একলা যাবো রে
অন্ধকারে
মাটির ঘরে
কি করে একলা রবো রে
ও ভাই তোরা আমার সাথে কেউ কি যাবি রে….

আমি কোন পথে যাই
অচিন দেশের পথ চিনি না
একলা রেখে আমায় তোরা যাসনি ও ভাই,
পিপাসায় হৃদয় ফাটে
পানি নেই নদীর ঘাটে
চারি পাশে আগুন দেখে থমকে দাঁড়াই…

সামনে আমার বিশাল সাগর
পকেটে নেই টাকা কড়ি
নেইতো আমার সাঁতার জানা
কি করে দেই সাগর পাড়ি
সবাই যায় খেয়া চড়ে
আমি থাকি একলা পড়ে
কি করে যাই আমি এখন ঐ পারে…

অশ্র“ ঝরছে দুচোখ দিয়ে
হাসছে সবাই আমায় নিয়ে
পাড়ি দিয়ে যাচ্ছে সবাই আমি শুধু পিছে,
করেছি রূপের বাহার
গড়েছি পাপের পাহাড়
হিসাবে গন্ডগোল আজ জীবন গেলো মিছে….

বিচারের কাঠগড়াতে
শিকল পরা পায়ে হাতে
শেষ বিচারে আমি হলাম দোষী,
আজ আমি একলা একা
কেউ নেই আমার আশেপাশে
আমি আজ নরকবাসী…..

কিসের আসায় দিন কাটালাম
কোথায় সাধের ঘরবাড়ি
মাটির দেহ মাটিতে আজ
চলে আসলাম সব ছাড়ি…

বন্ধু বান্ধব স্বজন সবাই
সুখে আছে যে যার – তাঁর,
আমি একা নরকবাসী
সঙ্গে কেউ আজ নেই আমার……।।