সিলেট প্রেসক্লাবে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ ॥ জোড়া খুনের আসামিদের রক্ষা করতে আমির আলী নিহতের ঘটনায় মামলা

স্টাফ রিপোর্টার :
সালুটিকরে জোড়া খুনের মামলার আসামিদের রক্ষা করতে আমির আলী নিহতের ঘটনায় সাজানো মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার সিলেট প্রেসক্লাবে পাল্টা এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেছেন সালুটিকরে জোড়া খুনের মামলার বাদী, গোয়াইনঘাট উপজেলার মিত্রিমহল গ্রামের মৃত সাজিদ আলীর পুত্র আব্দুস সুবহান।
লিখিত বক্তব্যে আব্দুস সুবহান জোড়া খুনের মামলার আসামি বহর গ্রামের আমির আলীর মৃত্যুকে স্বাভাবিক মৃত্য বলে দাবি করেছেন। তিনি আরো দাবি করেন, আমির আলী পলাতক অবস্থায় তার মেয়ের বাড়ি রুস্তুমপুর ইউনিয়নের পাতলিকোনা গ্রামে গত ১১ এপ্রিলি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তিনি বলেন, স্বাভাবকি এই মৃত্যুকে নিয়ে জোড়া খুনের মামলার প্রধান আসামি জামাল শুরু করেন। গোয়াইনঘাট থানা পুলিশকে পাশ কাটিয়ে আমির আলীর লাশ সিলেট শহরে নিয়ে এসে কোতোয়ালি থানা পুলিশকে দিয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন করানো হয়। থানায় মামলা না করে গত ১৫ এপ্রিল আদালতে মামলা করেন আমির আলীর স্ত্রী জয়নব বিবি। এরপর সংবাদ সম্মেলন করে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ভিত্তিহীন বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়। জয়নব বিবি তার স্বামী আমির আলীর মৃত্যুর জন্য যাদেরকে দায়ি করছেন তার কোনো বাস্তব ভিত্তি নেই।
আব্দুস সুবহান আরো বলেন, সংঘর্ষে মিত্রিমহল গ্রামের রুমেল আহমদ ও আলী আহমদ মনাই নিহতের ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ৯৭ জনের নাম উল্লেখসহ দুইশ জনকে আসামি করে গোয়াইনঘাট থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এই মামরায় ইতিমধ্যে ৩০ থেকে ৩২ জন গ্রেপ্তার হলেও প্রধান আসামি জামাল ও তার সহযোগী ফখর, ফয়েজ, মকবুল, লেচু এখনো গ্রেপ্তার হয়নি। তারা পলাতক অবস্থায় থেকে নানা রকম হুমকি-ধমকি প্রদান করছে এবং আমির আলী নিহতের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গভীর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। জামাল নিহত আমির আলীর চাচাতো ভাই হওয়ায় এ ষড়যন্ত্রে নেতৃত্ব দিচ্ছে। তাদের ভিত্তিহীন মামলায় মিত্রিমহল গ্রামবাসী অযথা হয়রানির শিকার হচ্ছেন। সংবাদ সম্মেলনে আমির আলী নিহতের ঘটনাটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত সত্য উদঘাটনের জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে আব্দুস সুবহানের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তার পুত্র আশরাফুল আমিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন লুৎফুর রহমান, মাসুদ আহমদ ও মানিক মিয়া।